অজিদের বিরুদ্ধে জয়ের কারণগুলি কি কি ?

0
59

দ্য পিপল ডেস্কঃ ২০১৫ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অজিদের বিরুদ্ধে হেরে প্রতিযোগিতা ছিটকে যাওয়া। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে সিরিজ জিতলেও ঘরের মাঠে ২-০তে এগিয়ে থেকেও সিরিজে হার। সমস্ত জমানো হারের বদলা তুলল কোহলি ব্রিগেড।  ওভালের মাটিতে অজিদের বিরুদ্ধে ৩৬ রানে জয় পেল টিম ইন্ডিয়া। এদিনের ম্যাচে বহু পুরানো রেকর্ডকেও ছাপিয়ে গিয়েছে মেন ইন ব্লুজ।

রেকর্ড ভাঙনঃ

১. বিশ্বকাপের মঞ্চে কোনও দলই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৩৫০ রান তুলতে পারেনি। সেই রেকর্ডকে ভাঙলো বিরাটরা।  

২. সচিনকে টপকে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দ্রুত ২০০০ রান তোলার নজির গড়ল রোহিত শর্মা।  ৩৭টি ম্যাচে এই রেকর্ড গড়েন তিনি।

৩.  ৮২ রানের ইনিংসের সঙ্গে ওয়ান ডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের তালিকায় নবম স্থানে জায়গা করে নিলেন বিরাট কোহলি।    

জয়ের কারণঃ

ওভালের মাটিতে অজিদের বিরুদ্ধে জয় পাওয়ার পেছনে অনেকগুলি কারণ লক্ষ্য করা যায়। কারণগুলি এক নজরে-

১. টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া।  ওভালের পিচ এবং আবহাওয়ার দিকে নজর রেখে টস জেতাটা গুরুত্বপূর্ন ছিল উভয় দলের কাছে।

২. ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে নেমে রোহিত-ধাওয়ানের ১২৭ রানের পার্টনারশিপ।

৩.  রোহিতের ৭০ বলে ৫৭  রানের ইনিংস ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। ৩ টে চার ও ১টা ছয়ের দৌলতে অর্ধশতরান করেন তিনি।

৪.  

ধাওয়ানের ১১৬ রানের ইনিংসের উপর ভর করে সাড়ে তিনশ রানের গণ্ডি পার করে ভারত। ১৬টি চারের দৌলতে শতরানের ইনিংস গড়ে তোলে।

৫.  রোহিতের আউটের পর ধাওয়ানের সঙ্গে বড় পার্টনারশিপ করেন কোহলি। তাঁর ৮২ রানের উপর ভর করে বড় স্কোরের দোড়গোড়ায় পৌঁছায় ভারত।

৬.  লোকেশ রাহুল, ধোনি ও পাণ্ডেয়ার ফিনিশিং টাচ অস্ট্রেলিয়ার সামনে পাহাড় সমান রানের টার্গেট তৈরি করেছিল।

৭. ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি পেস ও  স্পিন বোলিং দাপটে জয় টিম ইন্ডিয়ার। বুমরাহ ও ভুবনেশ্বর জুটি  কোমড় ভেঙে দিয়েছে অজি ব্যাটিং লাইন আপের। উভয় বোলার ৩টি করে উইকেট পান।

৮.  স্পিন ডিপার্টমেন্টে কুল-চা জুটি ২টি উইকেট পেলেও মাঝের ওভারগুলিতে  স্মিথ ও খোয়াজাদের ব্যাট শান্ত রেখেছিলেন তাঁরা।

৯. ভুনেশ্বর কুমারে এক ওভারে পর পর দুই উইকেট ও পরের ওভারে চাহালের বলে ম্যাক্সওয়েলকে আউট করে জয় ছিনিয়ে নেয় ভারত।               

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here