দ্য পিপল ডেস্কঃ আর মাত্র ঘণ্টাকয়েক। তারপরই মুখোমুখি হতে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।দেড় বছর পর মুখোমুখি দেখা হচ্ছে তাঁদের। ওইসময়ে গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেক জল। দিন যত এগিয়েছে, ততই দুপক্ষের মধ্যে সম্পর্ক তিক্ত হতে শুরু করেছে। দু পক্ষই দুপক্ষের বিরুদ্ধে তোপ দেগে চলেছেন, যাতে কঠিন হয়ে উঠেছে পরিস্থিতি।

গত লোকসভা ভোটের পর এ রাজ্যে বিজেপির উত্থানের পর সেই পরিস্থিতি পোঁছেছে একেবারে চরমে। প্রধানমন্ত্রীর প্রায় প্রতিটি পদক্ষেপই রোষ বাড়িয়েছে মমতার। যদিও তাঁর এই রণং দেহি মূর্তিকে রেয়াত করেননি মোদি। পালটা ছুঁড়ে দিয়েছেন চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডে অনেক বেশি ততপর হয়ে সংঘাতের বার্তা জোরালো করে তুলেছেন। তৃণমূল নেতাদের হয়রানি বাড়িয়েছে সিবিআই। তাতে ফোঁস করতে ছাড়েননি মোদির পয়লা নম্বর সমালোচক।সম্প্রতি নাগরিক পঞ্জিকরণ ইস্যু নিয়ে দু জনের সংঘাতও তীব্রতর হয়েছে।কেন্দ্রীয় সরকারের এহেন কাজকর্মের ফলে গলা ফাটাতে শুরু করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে সিবিআই গ্রেফতার করেছে কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা ও ইউপি সরকারের প্রাক্তন মন্ত্রী পি চিদম্বরমকে। তাতে শঙ্কা বেড়েছে দলনেত্রীর। অন্যদিকে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদ করা নিয়ে বিরোধীদের সোচ্চার প্রতিবাদেও সামিল হয়েছেন তিনি।দেশে সুপার এমার্জেন্সি চলছে বলে নমোর কড়া সমালোচনা করে মুখ্যমন্ত্রী বার্তা দিয়েছেন, আপস নয়, সংঘাতই একমাত্র পথ।

কিন্তু সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীবকুমারকে নিয়ে সিবিআইয়ের অতিসক্রিয়তা রীতিমতো চাপে ফেলে দিয়েছে মমতাকে। বিরোধীদের বক্তব্য, রাজীব ধরা পড়লে পর্দা ফাঁস হতে পারে অনেককিছুরই।তা থেকে রেহাই পাবেন না মুখ্যমন্ত্রী।সম্ভবত, সেই আসন্ন বিপদ থেকে নিজেকে নিরাপদে রাখতেই সংঘাতের বদলে আপসের পথে হাঁটতেই এই অসময়ে তড়িঘড়ি সাক্ষাত।

গত কয়েকদিন ধরেই লুকোচুরি চলছে রাজীবকুমারকে নিয়ে। তন্নতন্ন করে খোঁজ চলছে তাঁর। এমন একটা সময়ে মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফর নিয়ে শুরু হয়েছে বিরোধীদের কটাক্ষ।পাশাপাশি বিজেপিও ব্যাপারটাকে অন্যভাবে দেখতে শুরু করেছে। কৈলাস বিজয়বর্গীয় থেকে শুরু করে এ রাজ্যের বড়,মাঝারি নেতারাও ছেড়ে কথা বলছেন না। বিরোধীরা বলতে শুরু করেছেন মমতা কেন এমন একটা সময় বেছে নিলেন কেন,যখন সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডে রাজীবকে নিয়ে তোলপাড় চলছে।

মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য বলেছেন তিনি রাজ্যের উন্নয়ন ও বকেয়া নানা ইস্যু নিয়ে একান্তে কথা বলবেন। কিন্তু তাতেও থামেনি বিরোধীদের কটাক্ষ।রাজ্যের বিজেপি নেতারা বলছেন, সারদা নিয়ে সেটিং করতেই মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একান্তে কথা বলে আশ্বাস আদায় করার চেষ্টা করবেন। কেনই বা এর আগে কেন্দ্রের নানা আমন্ত্রণ ফিরিয়ে হঠাতই সঙ্কটকালে পাড়ি জমালেন রাজধানীতে।

তবে দু জনের মধ্যে কী নিয়ে কথা হবে, তা নিয়ে জল্পনার চেয়ে বাস্তবের দিকে তাকিয়ে থাকাটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। সংঘাতের পরিবেশ বদলে আপসের পথ এই আলোচনা সুগম করতে পারে কিনা, জানা যাবে কয়েক ঘণ্টা পরেই।   

3248 COMMENTS

  1. I think this is one of the most impotant information for me.

    And i am glad reading your article. But wanna remark on few general things, The web site style is perfect, the articles is really great!

  2. Very nice post.I just stumbled upon your blog and wanted to say that I’ve truly enjoyed surfing
    around your blog posts. In any case I wil be subscribing to your feed and I hoe you write again very
    soon!

  3. Excellent post. I was checking continuously this blog and I aam impressed!
    Extreely useful information. I care for sujch information a lot.

    I was looking for this certaiin information for a very long time.Thnk you and good luck.

  4. Howdy! I could have sworn I’ve been to
    this blog before but aftter browsing through some
    of tthe post I realized it’s new to me. Nonetheless, I’m definitely
    delighted I found it and I’ll bee bookmarkinmg andd checking back frequently!

  5. Outings of this sort stay sensibly planned as a consequence put in order. |It can be always selected into consideration| that the kito engages slice included with tries to portion the players into| groupings. As slimming voyages ensue chosen through |men and women in which overweight tolerates another personality. The idea |is usually lesser or even bigger. You always graft in different ways with like people. If a individual that wishes to am defeated some kilograms chooses to take a sleeking visit, |he’s going to am situated covered by an alternative list than the one who says twelve kilos to shed. The length of time connected with these kinds of excursions could| change. For a lot of relatives exactly who {decide|choose|end|determine|settle|influence|make