দ্য পিপলডেস্ক- দুর্গাপুজোর রেশ কাটতে না কাটতেই প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায় কালীপুজোর । তবে মাঝের ফাঁকা সময়তে অনায়াসেই সাত দিনের টুরে যাওয়াই যেতে পারে ।

হাতে যখন ৭দিনের মতো সময়,ঘুরেই আসা যায় দক্ষিণ ভারত থেকে ।

তবে কোনো মন্দির নয় এবারের পুজো শেষের ডেস্টিনেশন হোক পশ্চিমঘাটের অপরূপ সৌন্দর্য বিজরিত কর্ণাটক ।

Image courtesy : Theprint

ইউনেস্কো ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট হাম্পি ছাড়াও রয়েছে পশ্চিমঘাট পর্বতমালার অরণ্য যা পর্যটকদের মুগ্ধ করতে বাধ্য ।

তার মধ্যে অন্যতম পশ্চিমঘাট পর্বতমালার কোলে চিরহরিত অরণ্যে । ঘন সবুজ এই জঙ্গলে বিভিন্ন প্রাণী ছাড়াও রয়েছে ব্যাঘ্র প্রকল্প ।

image courtesy : natgeotraveller

প্রাণিজ সম্পদের পাশাপাশি জঙ্গলগুলি প্রাকৃতিক সম্পদেও ভরপুর । এছাড়া কর্নাটকে মশলা চাষের খ্যতি তো জগৎ জুড়ে রয়েছে ।

আজকের এপিসোডে থাকুক পশ্চিমঘাটের কোল জুড়ে থাকা বেশ কিছু অরণ্যের কথা –

পশ্চিমঘাট পর্বতমালার অরণ্য

১.ভদ্র ওয়াইল্ড লাইফ স্যাংচুয়ারি

পশ্চিমঘাট পর্বতমালার চিকমাগালুর ও সিমোগার মাঝে ৪৯২ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত

ভদ্র ওয়াইল্ড লাইফ স্যাংচুয়ারি ।

image courtesy : chikmagalur tourism

চিকমাগালুর জেলা থেকে ৩৮ কিলোমিটার দূরে ভদ্র নদীর নামানুসারে অরণ্যের নামকরণ করা হয়েছে ।

ভদ্র ওয়াইল্ড লাইফ স্যাংচুয়ারি পাখিপ্রেমীদের স্বর্গরাজ্য । প্রায় ২৫০ প্রজাতির পাখি এখানে আছে । এছাড়া বাঘ, লেপার্ড এবং মালাবার কাঠবিড়ালির দেখাও মিলতে পারে ।

Image courtesy : thrillophilia

দূরত্ব: শিমোগা থেকে ১০৩ কিলোমিটার দূরে, বেঙ্গালুরু থেকে ২৮৫ কিলোমিটার

ভ্রমণের উপযুক্ত সময়: অক্টোবর থেকে মার্চ – এর মধ্যে

আরও পড়ুন : অক্টোবর মানেই উত্‍সবের মাস

কীভাবে যাবেন

নিকটতম বিমানবন্দর: ম্যাঙালোর(১৬৩ কিমি)

নিকটতম রেলস্টেশন: কাদুর(৪০ কিমি)

এছাড়া ভদ্রভাতি, তারিকেরে এবং বিরুর থেকে বাসে আপনি সোজা চলে আসতে পারেন ভদ্র ওয়াইল্ড লাইফ স্যাংচুয়ারিতে ।

২.ব্রহ্মগিরি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারি

পশ্চিমঘাট পর্বমালার ব্রহ্মগিরি শৃঙ্গের একেবারে উপরে অবস্থিত ব্রহ্মগিরি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারি।

অরণ্যটি কেরালা রাজ্যের ওয়ানাড় এবং কর্নাটক রাজ্যের কুর্গের মাঝে অবস্থিত ।

Image courtesy : Tripoto

এখানে আপনি ম্যাকাও, হাতি, চিতল হরিণ, নীলগিরি হনুমানের দেখা পাবেন ।

অরণ্য ছাড়াও অঞ্চলের অন্য আকর্ষণ হল থিরুন্নেলাই মন্দির, পক্ষীপাথলম এবং ইরুপ্পু জলপ্রপাত ।

Image courtesy : Payana

অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী হলে তো কথাই নেই । অনায়াসে পেয়ে যাবেন ট্রেকিং-এর ডেস্টিনেশন ।

দূরত্ব: কুর্গ থেকে ৬০ কিলোমিটার এবং বেঙ্গালুরু থেকে ২৭০ কিলোমিটার

ভ্রমণের উপযুক্ত সময়: অক্টোবর এবং মে মাস টেক করার জন্য আদর্শ সময় ।

কীভাবে যাবেন :নিকটতম বিমানবন্দর হল মাইসুরু (১১৩ কিমি) এবং নিকটতম রেলস্টেশনও হল মাইসুরু (১১০ কিমি)

Image courtesy : Kerala travel explorer

এছাড়া কেএসআরটিসি বাসে বেঙ্গালুরু থেকে গোনিক্কোপ্পাল এবং শ্রীমঙ্গলা পর্যন্ত আসতে হবে । সেখান থেকে ১০ কিলোমিটার ট্রেক করে পৌঁছতে হবে জঙ্গলে । এছাড়া কেরালা থেকে

এসআরটিসি বাসে আপনি আসতে পারেন ব্রহ্মগিরি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারিতে ।

৩.ক্যভারি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারি

পশ্চিমঘাটের তৃতীয় অরণ্যের নাম ক্যভারি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারি । প্রায় ১০২ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে জঙ্গলটি মায়সুরু, বেঙ্গালুরু এবং মান্ডায়া জেলার কিছু অংশ জুড়ে অবস্থিত ।

Image courtesy : Indianature

পাখিপ্রেমীদের জন্য ক্যভারির জঙ্গল স্বর্গরাজ্য । এছাড়া চিতল হরিণ, সম্বর হরিণ, বুনো কুকুরের পাশাপাশি দুই শিং বিশিষ্ট কৃষ্ণসার হরিণ দেখা যায় ।

দূরত্ব: বেঙ্গালুরু থেকে ৯০ কিলোমিটার

ভ্রমণের উপযুক্ত সময়: আগস্ট থেকে ফেব্রুয়ারি

আরও পড়ুন : ব্যস্ত জীবনে অক্সিজেনের ডেস্টিনেশন, ছালামাথাং

কীভাবে যাবেন: নিকটতম বিমানবন্দর বেঙ্গালুরু এবং নিকটতম রেলস্টেশন হল রামনগর ।

এছাড়া বেঙ্গালুরু থেকে গাড়িতে হারোহালি, কনকাপুরা এবং সাথানুর হয়ে যেতে পারেন মুথাথি । এছাড়া মাদ্দুর, মালাভাল্লি এবং কোল্লিগাল হয়েও ক্যভারি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারি আসতে পারেন।

৪.দানদেলি ওয়াইল্ড লাইফ স্যাংচুয়ারি

রিভার রাফটিং ,জঙ্গলের পাহাড়ি রাস্তায় বাইকিং-এর শৌখিন ! তাহলে দানদেলি আপনার জন্য আদর্শ ঘোরার জায়গা । উত্তর কর্নাটকে ৮৭৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত এই জঙ্গলটি।

Image courtesy : Natgeotraveller

কালী নদী ছাড়াও দানদেলির জঙ্গলে বাঘ, নানা রকম পাখি  এবং কুমিরের দেখা মেলে । এছাড়া বিভিন্ন প্রাণী যেমন বিভিন্ন ধরনের হরিণ, ভারতীয় প্যাঙ্গোলিন ইত্যাদি দেখা যায় ।

Image courtesy : eventshigh

দূরত্ব: বেঙ্গালুরু থেকে ৪৮০ কিলোমিটার

কখন যাবেন: মার্চ থেকে অক্টোবর

Image courtesy : Curlytales

ভ্রমণের উপযুক্ত সময়: নিকটতম বিমানবন্দর হুবলি (৭৫ কিমি) এবং নিকটতম রেলস্টেশন আলনাভর (৩২ কিমি) এবং লন্ডা (৪৮ কিমি)

এছাড়া যেহেতু ধারওয়ার এই জঙ্গলের নিকটতম শহর । তাই বেঙ্গালুরু, বেলগাঁও, হুবলি এবং কারওয়ার থেকে গাড়িতে অনায়াসেই দানদেলির জঙ্গলে আসা যায় ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here