দ্য পিপল ডেস্কঃ উল্লাস কোরো না আমেরিকা, আমরা আছি। পূর্ব থেকে পশ্চিমে ছড়িয়ে পড়ছি আমরা। এইভাবেই আমেরিকাকে হুমকি দিয়ে রাখল আইএস-এর নয়া নেতা আবু ইব্রাহিম আল হাশিমি আল কুরেশি।

আল বাগদাদীর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে নতুন মুখপাত্রর নাম ঘোষণা করেছে জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর মুখপাত্র আবু হামজা আল কুরেশি।

আমেরিকার হানায় মৃত বিশ্বত্রাস আল বাগদাদীর উত্তরসূরী এই আবু ইব্রাহিম আল হাশিমি আল কুরেশি।

বাগদাদীর চেয়ারে বসে এখন থেকে পুরো সংগঠন চালাবে নতুন নেতা আবু ইব্রাহিম। সম্প্রতি একটি অডিও বার্তা প্রকাশ করে বিশ্বের কাছে বার্তা দিতে চেয়েছে আইএস। সেই সঙ্গে হুঁশিয়ারি দিয়েছে আমেরিকাকে।

আরও পড়ুনঃ মার্কিন সেনার গুলিতে নয়, আত্মঘাতীই বাগদাদি

অডিও বার্তার সত্যতা যাচাই করেছে আমেরিকার ইন্টালিজেন্স গ্রুপ। ওই অডিও বার্তায় আরও হুমকি দেওয়া হয়েছে, আমেরিকা আইএস নেতাদের হত্যা করে তাদের থামিয়ে রাখতে পারবে না। তারা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়বে এবং তাদের মিশন চালিয়ে যাবে।

ইন্টালিজেন্স গ্রুপের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বাগদাদীর মতো শীর্ষ নেতার নেতার মৃত্যুর পাল্টা প্রত্যাঘাত চালাতে পারে জঙ্গি সংগঠনটি। সেকারণে সব দিক থেকে প্রস্তুত থাকছে তারাও।  

কে এই নতুন নেতা

আশ্চর্যের এটাই যে, বাগদাদীর পর তার উত্তরসূরী হিসেবে যাদের নাম ঘোকরাফেরা করছিল তাদের কাউকেই নির্বাচিত করা হয়নি। বরং বাগদাদীর জায়গায় এসেছে সম্পূর্ণ নতুন মুখ।

নতুন নেতা সম্পর্কে খুব বেশি তথ্য জানা না গেলেও জঙ্গি কার্যকলাপে যোগ দিয়েই সব থেকে বড় আসন পেয়েছে আবু ইব্রাহিম আল হাশিমি আল কুরেশি। তবে ইসলামের শরিয়তি আইন মেনেই তাকে এই পদে বসানো হয়েছে।  

কেন নতুন মুখ

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, নতুন নেতা হিসেবে যাকেই আনা হবে সেই টার্গেট হয়ে যাবে। নতুন মুখকে সামনে রেখে কাজ চালিয়ে যাবে পুরনো নেতারাই।

বাগদাদীর মতো কুখ্যাত ও বড় মাথা ধ্বংস দলের পক্ষে পিছু হঠে যাওয়ার সমান। সেখান থেকে আবার দল ও সংগঠনকে চাঙ্গা করতে পিছন থেকেই অভিজ্ঞরা কাজ করতে চায় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here