দ্য পিপল ডেস্কঃ করোনা সংক্রমণের কারণে ভীত ও সন্ত্রস্ত দেশবাসী। এই করোনা আবহে আসছে বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো।

পুজো নিয়ে আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়েছে রাজ্য সরকার।

রাজ্যের সব পুজো কমিটির জন্য বিশেষ গাইডলাইন প্রকাশ করা হয়েছে।

সেই সকল গাইডলাইন মেনেই পুজোর ব্যবস্থা করছে পুজো কমিটিগুলো।

সেই মতো আলিপুরদুয়ার দুর্গাবাড়িতে এবার ভিড় জমাতে পারবেন না দর্শনার্থীরা।

১১৭ বছরের প্রাচীন এই দুর্গাপুজোয় করোনা আবহে যাতে কোনও দর্শনার্থী ভেতরে প্রবেশ করতে না পারেন তার জন্য গোটা মন্দির বাঁশের ব‍্যারিকেড দিয়ে মুড়ে ফেলা হচ্ছে।

আলিপুরদুয়ার জেলার মধ‍্যে অন‍্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী পুজো আলিপুরদুয়ার দুর্গাবাড়ির দুর্গাপুজো।

প্রতিবছর দুর্গাবাড়িতে ভিড় জমান কয়েক হাজার মানুষ।

ঐতিহ্যবাহী এই পুজোয় আসা দর্শনার্থীদের প্রতিবছর পাত পেড়ে খিচুড়ি ভোগ ও সন্দেশ ভোগ খাওয়ানো হয়।

কিন্তু এবছর করোনা সংক্রমণের কারণে সেই ব‍্যবস্থা থাকছে না ।

শুধু নিয়ম মেনে পুজো হবে বলে জানা গিয়েছে।

এছাড়া অষ্টমীর আঞ্জলিতেও থাকছে একাধিক বিধিনিষেধ।

আলিপুরদুয়ার দুর্গাবাড়িতে প্রতিবছর অষ্টমীর দিন এক সঙ্গে হাজার মানুষ অঞ্জলি দিতেন।

কিন্ত এবছর এক সঙ্গে চল্লিশ জনের বেশি অঞ্জলি দিতে পারবেন না।

নিয়মের বেড়াজাল থাকছে দশমীর সিঁদুর খেলায়ও ।

সরাসরি মাকে সিঁদুর পরানো যাবে না এবছর।

মারণ ভাইরাস করোনার কারণে সবকিছুতেই প্রভাব পড়েছে।

পুজোর ক্ষেত্রে বহু কাটছাঁট করতে হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আলিপুরদুয়ার দুর্গাবাড়িতে দূর থেকেই ঠাকুর দেখে মন ভরাতে হবে দর্শনার্থীদের।

ব্যারিকেডের বাইরে দেখে প্রতিমা দর্শনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

প্রতিবছর সাধারণ মানুষ প্রচুর ভোগ দেয়।

কিন্তু এবার তা না হওয়ায় কিছুটা দুঃখিত সাধারণ মানুষ।