দ্য পিপল ডেস্ক: কয়েকদিন আগেই মিলেছিল স্বস্তির খবর। ভারতে তৃতীয়  করোনামুক্ত রাজ্য হিসেবে ঘোষিত হয়েছিল ত্রিপুরা। কিন্তু সেই স্বস্তি বেশি দিন টিকল না। 

১২ জন বিএসএফ জওয়ান আক্রান্ত হয়েছেন ত্রিপুরায়। রবিবার খবরটি সামনে আসে। 

সূত্রের খবর, আম্বাসায়  ১৩৮ তম ইউনিটে সংক্রমণ ঘটে। রবিবার এই ইউনিটের ১২ জন জওয়ানের শরীরে মিলেছে করোনার জীবাণু। এর পরেই ত্রিপুরায় সংক্রমণের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৬। ইতিমধ্যে দুজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

প্রসঙ্গত ত্রিপুরার প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী উদয়পুরে বাসিন্দা আর  দ্বিতীয় আক্রান্ত একজন জওয়ান। তিনি যেই ক্যাম্পে ছিলেন সেই তিনটি ক্যাম্পকে স্পর্শকাতর এলাকা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল করোনা আক্রান্তরা যে এলাকায় ছিলেন তার এক কিলোমিটারের মধ্যে সকলের পরীক্ষা করা হবে।

  স্পর্শকাতর এলাকায় রাপিড অ্যান্টিবডি কিট দিয়ে পরীক্ষাও হয়েছে। ১৪দিনে কোনও সংক্রমণের খবর মেলেনি। কিন্তু রবিবার এল দুঃসংবাদ। ১২জন জওয়ান আক্রান্ত। এই কয়েকদিনে তাঁরা কাদের সংস্পর্শে এসেছে তার খোঁজ চলছে।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে উদয়পুর, সাতনালা, দামছাড়া এলাকায় পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে গোটা ত্রিপুরায় ১৫০ নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে।

রাজ্যের তরফে জানা গেছে, যে পরিমাণ করোনা পরীক্ষা কিট এসেছে তা সব জেলায় পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। আচমকা ১২জনের সংক্রমণে চিন্তায় বিপ্লব দেবের সরকার।