ছবিঃ সংগৃহীত

 ।। আঁখি রায় ।। 

এক বিজেপি নেতার পুজো উদ্বোধন করলেন তৃণমূল নেত্রী মহুয়া মৈত্র। কৃষ্ণনগরের বিজেপি নেতা অসিত সাহার পুজো উদ্বোধন করেন তিনি।

মাস কয়েক আগেই গেরুয়া খাতায় নাম লিখিয়েছেন অসিত। তার আগে অবশ্য কৃষ্ণনগর পুরসভার প্রাক্তন পুরপ্রধান অসীম সাহার বিরুদ্ধে স্বজন-পোষণ সহ নানা অভিযোগে সরব হয়েছিলেন তিনি। অনুগামীদের নিয়ে ধরনা, বিক্ষোভ প্রদর্শন করেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পুরসভার সাত কাউন্সিলরও অসিতের পক্ষ নেন। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা সভাও বয়কট করেন এঁরা।সমস্যা মেটাতে এঁরাই দ্বারস্থ হন সাংসদ তৃণমূলের মহুয়া মৈত্রের।

তৃণমূলের টিকিটে চার নম্বর ওয়ার্ডে জয়ী হয়ে কাউন্সিলর হয়েছিলেন অসিত। এহেন অসিতই দুর্নীতির প্রতিবাদ করে দল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখান।এর পর ফের জেলা সভাপতি সহ বিজেপি নেতাদের নিয়ে প্রাক্তন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে সোচ্চার হন। এই অসিতই ঘূর্ণী তরুণ সংঘের সভাপতি। তাঁরই পুজো উদ্বোধন করে বিতর্কে মহুয়া।

দেবশ্রী রায়কে নাকি বিজেপিতে যোগদান করানো নিয়ে বিরাট ভূমিকা পালন করেছিলেন মহুয়া। তিনিই নাকি দেবশ্রীকে দলে নেওয়ার জন্য বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে অনুরোধ করেছিলেন। পরে অবশ্য দেবশ্রীর বিজেপিতে যোগ দেওয়া হয়নি। মহুয়াও এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি।

বিজেপি নেতার পুজো উদ্বোধনে গিয়ে বিতর্ক উসকে দিয়েছেন মহুয়া। লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হলেও মহুয়া হেরে যান উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রে। এই বিধানসভার মধ্যেই পড়ে কৃষ্ণনগর পুরসভার ২৪টি ওয়ার্ড। এই ২৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে ২৩টিতেই হেরেছেন মহুয়া। নির্বাচনের পরে দলে উপদলীয় কোন্দল নিয়ে আলোচনা হয় বিস্তর।তার পরে কী এমন ঘটল যে অসিতের পুজো উদ্বোধন করতে গেলেন মহুয়া! তাঁর সঙ্গে ছিলেন অসিতের ঘোর শত্রু প্রাক্তন চেয়ারম্যান অসীম সাহাও।তাই নয়া এই সমীকরণ নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চর্চা।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এর মধ্যেও রাজনীতির কূট চালটি খেলে দিয়েছেন মহুয়া। অসিতের পুজো উদ্বোধনে গিয়ে একদিকে তিনি যেমন অসিতের মতো দাপুটে নেতাকে তৃণমূল ওয়াপসিতে সচেষ্ট হলেন, তেমনি অন্যদিকে চাপে রাখলেন অসীমকেও।

এ ব্যাপারে অবশ্য মহুয়ার কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।তবে অসিত বলেন, এর মধ্যে রাজনীতি কিছু নেই। এটা ক্লাবের ব্যাপার। ওঁদের আমন্ত্রণ করা হয়েছিল, এসেছিলেন। এর বেশি কিছু নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here