দ্য পিপল ডেস্ক: দশমীর দিন উমা পাড়ি ফিরে গিয়েছেন কৈলাশে। মন ভালো নেই মর্ত্যবাসীর। একাদশীর সকাল থেকে মুখ ভার আকাশের-ও। বৃষ্টি যেন পিছু ছাড়তে চাইছে না।

পুজোর দিনগুলিতে বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই মেলেনি। কখনো ভারী আবার কখনও মাঝারী বৃষ্টি মাথায় নিয়ে শহরতলির বিভিন্ন মন্ডপে উপচে পড়েছে ভিড়। নবমীর দিনটিতে আকাশ ঝলমলে থাকলেও দশমীর সন্ধ্যা থেকেই শুরু হয়েছে বৃষ্টি।

একাদশীর দিনে একেবারে সকাল থেকেই শুরু হয়েছে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি। ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিতে ভাসছে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলি। জলমগ্ন হয়ে রয়েছে পূর্বমেদিনীপুরের এগরা, হলদিয়া ও কাঁথি। 

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, ওড়িশা সংলগ্ন এলাকা ও উত্তরবঙ্গে জোড়া ঘূর্ণাবর্তের জেরে রাজ্যে ঢুকেছে প্রচুর জলীয়বাষ্প।

এই কারণেই বুধবার উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় বাতাসে বজায় থাকবে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি। এর জেরে সারাদিন ভ্যাপসা গরম থাকবে।

বুধবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি  কম। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বৃষ্টি হয়েছে ০.৩ মিলিমিটার। তবে বৃহস্পতিবার থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।    

ঘূর্ণাবর্তের জেরে সকাল থেকে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয়েছে বৃষ্টি। সকাল থেকে দফায় দফায় বৃষ্টিতে কলকাতা সংলগ্ন অনেক এলাকায় জল জমেছে।

উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে ভারী-অতিভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন হবে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here