Kristen become Indian Cricket Coach

দ্য পিপল ডেস্ক : ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচ হওয়া নিয়ে অনেক নাটক হয়েছে গত কয়েক বছরে। অনিল কুম্বলে কোচ হলেও, তার নেতৃত্বে খেলতে চাননি বিরাট। চেয়েছিলেন রবি শাস্ত্রীকে আনতে।

তবে শাস্ত্রী কোহলি জুটি এখনও পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেট দলকে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে দিতে ব্যর্থ হয়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ওঠা ছাড়া বিশেষ কিছু সাফল্য নেই তাঁদের।

ভারতের হয়ে সর্বকালের অন্যতম সেরা কোচ গ্যারি কার্স্টেন গল্প শোনালেন ভারতীয় দলের তার কোচ হয়ে ওঠার। সেই সময় সদ্য বিশ্বকাপে জঘন্য পারফরমেন্সের পর গ্রেগ চ্যাপেলের বিদায়ঘন্টা বেজেছে।

সুনীল গাভস্কারের একটি মেল এসে পৌঁছায় কার্স্টেনের মেল বক্সে। ভারতীয় দলের কোচ হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয় তাঁকে। ভুয়ো মেল ভেবে খুব বেশি পাত্তা দেননি তিনি।

এরপর ফের সানির মেল আসে, তাঁকে ইন্টারভিউ দিতে আসতে বলা হয়। এবার সেই মেল নিজের স্ত্রীকে দেখান কার্স্টেন। সুর মিলিয়ে কার্স্টেনের স্ত্রীও বলে দেন, হয়ত ভুল মেল আউডিতে এই মেল চলে এসেছে।

এরপর অবশ্য বোর্ডের সঙ্গে কথা বলে ভারতে আসেন তিনি। বিসিসিআই কর্তা এবং সিলেকশন প্যানেলের সামনে ইন্টারভিউ দিতে আসার সময় কার্স্টেন মুখোমুখি হন অনিল কুম্বলের।

যিনি তত্কালীন ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন। কার্স্টেনের কোচ হতে আসার কথা শুনে, কুম্বলে হাসতে শুরু করে দেন।

এরপর বিসিসিআইয়ের নির্বাচক প্যানেলের মুখোমুখি হওয়ায়, তার সামনে প্রশ্ন আসে ভারতীয় দল কিভাবে ভবিষ্যতে উন্নতি করবে তার কোনও রোডম্যাপ আছে কিনা।

তা শুনে কার্স্টেন অবাক হয়ে জানান, তিনি এসব তৈরির করার কথা কিছুই জানতেন না, তাই তিনি তা নিয়ে আসেননি।

এরপর রবি শাস্ত্রী তাঁকে প্রশ্ন করেন, ভারতকে হারাতে প্রয়োটিয়াজরা কীভাবে তৈরি করে নিজেদের। সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েই সঙ্গে সঙ্গে হাতে চুক্তিপত্র পেয়ে যান কার্স্টেন।

যদিও কাহানিতে টুইস্ট রয়েছে সেখানেও। চুক্তিপত্র হাতে পেয়ে দেখেন, নাম লেখা রয়েছে গ্রেগ চ্যাপেলের। এরপর সেই নাম কেটে কার্স্টেনের নাম লিখে দেন বোর্ডের এক কর্তা। এভাবেই শুরু হয় ভারতীয় ক্রিকেটে গ্যারি কার্স্টেন জমানা।