দ্য পিপল ডেস্কঃ ১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে চলা আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে ঘিরে অনিশ্চয়তার কালো মেঘ।

করোনা ভাইরাসের জেরে পিছিয়ে যেতে পারে এই মেগা ইভেন্ট। যদিও কিছু স্পোর্টস কম্পিটিশন শুরু হয় গেছে এর মধ্যে। তবে ঝুঁকি নিতে রাজি নয় আইসিসি। তবে বিশ্বকাপ না হলে শিকে ছিড়তে পারে আইপিএলের।

অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন তারকা মার্ক টেইলর মনে করছেন এই বছরের আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হয়ে যাবে। আর এটাই কোভিড -১৯ মহামারীর পরিস্থিতির কারণে পিছিয়ে যাওয়া ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের দরজা ফের খুলে দিতেই পারে।

টেলর বলছেন, বিশ্বকাপ পিছিয়ে সেই সময় যদি স্থগিত হয়ে যাওয়া আইপিএল অনুষ্ঠিত হয়, তাই ভারতে ভ্রমণের দায়িত্বটা খেলোয়াড়কে ব্যক্তিগত ভাবে নিতে হবে। জাতীয় ক্রিকেট বোর্ড নেবে না।

টেলর বলছেন, আমি মনে করি টি-২০ বিশ্বকাপ পিছিয়ে দেওয়াই সম্ভবত সবচেয়ে সম্ভাবনাময় পরিস্থিতি। কারণ ১৫ টি দল অস্ট্রেলিয়ায় অক্টোবরের থেকে নভেম্বরের মধ্যে আসার পরিকল্পনা করছে, প্রস্তাবিত সাতটি ভেন্যুতে ৪৫ টি ম্যাচ হবে।

এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বের যা অবস্থা তাতে করোনা মহামারী ব্যাপক ভাবে বেড়েই চলেছে। ফলে কাজটা কঠিন হতে চলেছে। এছাড়াও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে ক্রিকেটারদের থাকতে হবে। ফলে কাজটা আরও কঠিন হয়ে যাবে।

৫৫ বছর বয়সী এই প্রাক্তন ওপেনার বলছেন, যদি আইপিএলে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা যায়, তাহলে ভারতীয় বোর্ডের সঙ্গে কথা বলে তাদেরকেও সেদেশে নিয়ে আসা উচিত ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার।

অস্ট্রেলিয়া অবশ্যই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চাইবে তবে একই সঙ্গে যদি বিশ্বকাপ না হয় তাহলে আর্থিক লাভের দিকটি মাথায় রেখেই আইপিএলে ক্রিকেটের ছাড়া নিয়ে ভাবা উচিত অস্ট্রেলিয়ান বোর্ডের।

শুধু ভারতের সঙ্গে সিরিজ খেলার জন্যে অ্যাডিলেডকে বেছে নিতে পারে অস্ট্রেলিয়া। সেখানে তারা মাঠের সঙ্গে একটি হোটেল সংযুক্ত করতে পারে।

সেখানে ভারতীয় ক্রিকেট দল ২০২০ সালের শেষ থেকে জানুয়ারি ২০২০ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া সফর করবে একটি পূর্ণ সিরিজের জন্য যেখানে তিনটি ওয়ান ডে এবং আরও টি-টোয়েন্টি ছাড়াও বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসাবে চারটি টেস্ট ম্যাচ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।