দ্য পিপল ডেস্ক : লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষের পর ২৪ জুন চিনের আওতাধীন ৫৯ টি অ্যাপ ভারত সরকার নিষিদ্ধ করে দিয়েছিল।


তার মধ্যে সবচেয়ে অন্যতম ছিল বহুল প্রচলিত টিকটক।


ঠিক ১ মাস পর ২৭ জুলাই চিনের আরও ৪৭ টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করে দিল ভারত সরকার।


সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, সদ্য নিষিদ্ধ করা ৪৭ টি অ্যাপ ক্লোন হিসেবে কাজ করছিল।


খুব তাড়াতাড়িই তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের তরফে নিষিদ্ধ হওয়া নতুন ৪৭ টি অ্যাপের সম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করা হবে।


জানা গিয়েছে, এই ৪৭ টি অ্যাপের মধ্যে অন্যতম হল, টিকটক লাইট, হ্যালো লাইট, শেয়ারইট লাইট, ভিগো লাইভ লাইট, ভিএফওয়াই লাইট।


সরকারি সূত্রে খবর, ভারত আলিবাবার সঙ্গে যুক্ত অ্যাপ সহ ২৫০ টিরও বেশি চিনা অ্যাপের একটি তালিকা প্রস্তুত করেছে। ওই তালিকায় টেনসেন্ট ব্যাকড গেমিং অ্যাপ পাবজিও রয়েছে।


সূত্রের খবর, বর্তমানে শীর্ষস্থানীয় সব চাইনিজ গেমিং অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করার জন্য নতুন তালিকা তোইরি করা হচ্ছে।


জানা গিয়েছে, এই অ্যাপগুলি চিনা এজেন্সিগুলির সঙ্গে ব্যবহারকারীদের তথ্য ভাগ করে নিচ্ছে।


উল্লেখ্য, এর আগে নিষিদ্ধ করা টিকটক সহ ৫৯ টি চিনা অ্যাপের পর আজ নতুন করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।


ভারত সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, এই অ্যাপগুলি ভারতের সার্বভৌমত্ব, অখন্ডতা ও প্রতিরক্ষার পক্ষপাতিত্বমূলক কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত।


নিষেধাজ্ঞার একটি প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই অ্যাপগুলিকে তথ্যপ্রযুক্তির আইনের ৬৯ এ-এর আওতায় আনা হবে।


প্রসঙ্গত, এই নিষেধাজ্ঞা জারির পর ভারতে অ্যাপ বন্ধের কারণে টিকটক ভারত সরকারের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছে।