দ্য পিপল ডেস্ক : শান্তিপুর এনএস রোডের সংলগ্ন মালোপাড়ার নিষিদ্ধপল্লীতে একটি গাছের মোটা মোটা ডাল কাটা হয়েছিল বেশ কিছুদিন আগে।

প্রশাসন বাধা দিলে বন্ধ হয়ে যায় কিছুদিনের জন্য। ফের প্রকাশ্যে ওই গাছের মোটা ডালকেটে কে বা কারা নিয়ে যান তাও জানা যায় না স্পষ্ট।

এই বিষয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বনবিভাগের নির্দেশ পেলে বিগত দিনের মতো এই গাছকাটা আটকাতে পারতাম।

অন্যদিকে বনবিভাগ সূত্রে জানা যায় ওই ডাল কাটার কোন অনুমতি নেয়া হয়নি। এ বিষয়ে অবশ্য কারোর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি।

শান্তিপুরে বিভিন্ন পরিবেশপ্রেমী, বিজ্ঞানকর্মীরা ফোনে ফোনে বিভিন্ন বিভাগে জানালেও ঘটনাস্থলে পৌঁছানো বা শান্তিপুর থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের করেননি।


এবিষয়ে, শারীরিক বিভিন্ন সমস্যাকে উপেক্ষা করেও মঙ্গলবার দুপুরে কয়েকজন শারীরিক প্রতিবন্ধী মানুষ ওই গাছে “ক্র্যাচ”বেঁধে প্রতিবাদ জানায় গাছ কাটার বিরুদ্ধে।


তাদের পক্ষ থেকে সুজন দত্ত জানান ” বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতেও নৈতিকতা, লোকলজ্জা জলাঞ্জলি দিয়ে আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে যারা এই কাজে লিপ্ত হয়েছেন, তাদের জন্য ওই গাছে ক্র্যাচ বাধা হয়েছে।

যাতে অন্তত একবার হলেও বিবেক দংশন হয়! আমাদেরই মত গাছকেও যেন ক্রাচে ভর করে চলতে না হয়।