দ্য পিপল ডেস্কঃ শুক্রবার ভোররাতে এনকাউন্টার করা হয় তেলেঙ্গানা গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় গ্রেফতার চার অভিযুক্তকে। এই ঘটনার পর থেকে দেশ জুড়ে উচ্ছাস দেখা গিয়েছে।

তেলেঙ্গানা পুলিশকে অভিন্দন জানিয়েছেন দেশের আমজনতা।

তেলেঙ্গানা পুলিশের এই কর্মকাণ্ডের জন্য মিষ্টি বিতরণ থেকে শুরু করে বাজি ফাটানো, আবার তেলেঙ্গানায় পুলিশদের রাখি পড়াচ্ছেন।

এমন চিত্র উঠে এসেছে এদিন।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করতে চান রাজ্যপাল

তেলেঙ্গানা ধর্ষণকাণ্ডে চার অভিযুক্ত এনকাউন্টারের ঘটনায় অভিনেতা অনুপম খের টুইট করে বলেন, তেলেঙ্গানা পুলিশকে অভিনন্দন জানাই। আরও যারা এই অপরাধের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল, তারা একসঙ্গে আমার সঙ্গে বলুন জয় হো।

তেলেঙ্গানা ঘটনার অভিযুক্তদের এনকাউন্টার

শুক্রবার তেলেঙ্গানার শামসাবাদ থানার পুলিশ ‘দিশা’ ধর্ষণ ঘটনার পুনর্নিমানের জন্য ৪৪ নম্বর জাতীয় সড়ক পথের ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয় চার অভিযুক্তকে।

পুলিশের বয়ান অনুযায়ী, সেখানে ওই চার অভিযুক্ত পুলিশের বন্দুক চুরি করে পালিয়ে যাচ্ছিলো।

সেই সময় আত্মরক্ষার স্বার্থে পুলিশ গুলি চালায় অভিযুক্তদের ওপর।

যদিও তেলেঙ্গানা পুলিশের এমন পদক্ষেপ নিয়ে রাজনৈতিক, তারকা মানুষরা ভিন্ন ভিন্ন মত পোষণ করেন।

কেউ কেউ বলেন যে পুলিশে নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়া উচিত হয়নি। আবার কেউ মত দিয়েছেন তেলেঙ্গানা পুলিশের স্বপক্ষেই।

তেলেঙ্গানা ঘটনার অভিযুক্তদের এনকাউন্টার নিয়ে ঘাটালের সাংসদ ও টলিউড অভিনেতা দেব বলেন, অভিনন্দন হায়দরাবাদ পুলিশ। এটা দরকার ছিল।

 প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজবর্ধন সিং রাঠোরের টুইটকে রিটুইট করে বলিউড অভিনেতা সোনু সুদ লেখেন, তেলেঙ্গানা পুলিশ হল সত্যিকারের হিরো।

 টলিউড অভিনেত্রী তথা বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান বলেন, অবশেষে কেউ একজন বিচার পেল। ন্যায় বিচারের জন্য প্রশাসনকে আরও কড়া হতে হবে। কন্ঠস্বর তোলো, যাতে কোনও অপরাধী ছাড়া না পায়।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানান, অবশেষে শাস্তি হল। তবে এত পুলিশ থাকা সত্বেও কিভাবে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায় ? কিন্তু শেষে পুলিশ নিজের দায়িত্ব পালন করেছে। সঠিক বিচার পেয়েছে। আশা করছি আগামী দিনে সমস্ত অভিযুক্তরা সাজা পাবে। এই অপরাধ বন্ধ হবে।

21 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here