দ্য পিপল ডেস্কঃ কৃষি আন্দোলন নিয়ে সোচ্চার গোটা দেশ।

কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়েছেন রাজনৈতিক নেতা থেকে সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

রাজধানী দিল্লিতে চলা কৃষক আন্দোলন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করল শীর্ষ আদালত।

কৃষক আন্দোলন ও কৃষি আইন সংক্রান্ত সমস্ত মামলার শুনানি হবে চলতি মাসেই।

কৃষি আইনে দায়ের হওয়া মামলার শুনানি হবে ১১ জানুয়ারি।
উল্লেখ্য, কেন্দ্রের কৃষি আইনের প্রতিবাদে গত দেড় মাস ধরে দিল্লির একাধিক সীমান্তেই আন্দোলন চালাচ্ছেন কৃষকরা।

সমাধানের পথ বের করার জন্য কেন্দ্রের সঙ্গে সাতবার বৈঠকে বসেছে কৃষক ইউনিয়নের সদস্যরা।

কিন্তু কোনও সমাধান সূত্র উঠে আসেনি।

কেন্দ্র ও কৃষক সংগঠন কোনও সমাধানেই না আসতে পারার কারণেই সব মামলা শুনতে রাজি হল সুপ্রিম কোর্ট।

জানা গিয়েছে শীর্ষ আদালত বুধবার একটি নোটিশ জারি করে মামলার শুনানির দিনক্ষণ জানিয়েছে।
কেন্দ্র সংসদের তিনটি কৃষি বিল পাস করানোর পর থেকেই শুরু হয়েছে আশান্তি।

পাঞ্জাব, হরিয়ানা সহ দেশজুড়ে কৃষকরা তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি তুলেছেন।

প্রতিবার বৈঠকে নতুন নতুন আশা নিয়ে গেলেও লাভের লাভ কিছু হয়নি।

সমাধানে আসতে পারেনি কৃষক সংগঠনগুলি ও কেন্দ্র।

কেন্দ্রের পক্ষ থেকে একাধিকবার সংশোধনী আনার কথা বলা হলেও কৃষকরা তা মানতে নারাজ।

আন্দোলন থেকে পিছু হটার বদলে আরও জোরদার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাঁরা।

এদিকে ক্ষমতায় থাকা সরকারের নীতি নিয়ে সোচ্চার হচ্ছেন বিরেধী নেতৃত্বরাও।

বুধবার ট্রাক্টর মিছিল করার কথা থাকলেও আবহাওয়া খারাপ থাকার কারণেই তা পিছিয়ে বৃহস্পতিবার করা হয়েছে।
বুধবার প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে, বিচারপতি এএস বোপান্না এবং বিচারপতি ভি রাম সুব্রাহ্মণ্যমের বেঞ্জ জানিয়েছে পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি কৃষকদের অবস্থা তাঁরা বুঝতে পারছেন।

  • ৮ জানুয়ারি কৃষকদের সঙ্গে সরকারের অষ্টম দফায় বৈঠক হয়েছে তাতে সমস্যার সমাধান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।