জয়েন্ট এন্ট্রান্সে ভাষা বৈচিত্র্যের বিরোধীতায় মমতার পাশে সুজন

দ্য পিপল ডেস্কঃ তৃণমূল যুব নেতা ও সাংসদ অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের পর জয়েন্ট এন্ট্রান্সে -র প্রশ্নপত্রে হিন্দি,ইংরেজির সঙ্গে শুধুমাত্র গুজরাটি ভাষা যুক্ত হওয়া নিয়ে মুখ খুললেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে ক্ষোঊ উগরে দেন তিনি।

বলেন যে, বিভিন্ন ধর্ম-সংস্কৃতি-ভাষা-সম্প্রদায়ের মানুষ আমাদের ভারতবর্ষে বাস করে। অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষার বিরুদ্ধে অশ্রদ্ধা করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

আরও পড়ুনঃ #ARTICLE14EQUALITY- জয়েন্ট এন্ট্রান্স -এ আঞ্চলিক ভাষাকে প্রাধান্যের দাবি অভিষেকের

তিনি জয়েন্ট এন্ট্রান্সে হিন্দি ও ইংরেজির সঙ্গে গুজরাটি ভাষা যোগ হওয়া নিয়ে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে হিন্দি ও ইংরেজি ভাষায় জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা হয়ে আসছে। হঠাৎই কেন শুধুমাত্র গুজরাটি ভাষা যোগ হল? এটি কোনও প্রশংসীয় পদক্ষেপ নয়।

তিনি যে গুজরাটি ভাষার বিরুদ্ধে নন, এদিন তাও স্পষ্ট করে দেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু কেন অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষার থেকে গুজরাটি ভাষাকে ভিন্নভবে দেখা হবে?

তাঁর কথায় যদি গুজরাটি ভাষা থাকে, তাহলে বাংলা, ওড়িয়ার মতো অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষাও যুক্ত করতে হবে।

গুজরাটির পাশাপাশি জয়েন্ট এন্ট্রান্সে অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষা যুক্ত না হলে বড় আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারিও দেন তিনি। 

এই বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী।

তাঁর কথায়, কিভাবে জয়েন্ট এন্ট্রান্সের মতো পরীক্ষায় হিন্দি ও ইংরেজি ভাষার সঙ্গে গুজরাটি ভাষা যুক্ত হয়?

যেখানে জয়েন্ট এন্ট্রাস পরীক্ষায় সর্বোচ্চ পরীক্ষার্থীর মধ্যে দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে বাংলা তৃতীয় স্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র। তাহলে কেন ব্রাত্য থাকবে বাংলা ও মহারাষ্ট্রের মতো অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষাগুলি।

প্রসঙ্গত মঙ্গলবারই জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় হিন্দি ও ইংরেজির সঙ্গে শুধুমাত্র গুজরাটি ভাষা যুক্ত হওয়া নিয়ে টুইটারে সরব হয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here