দ্য পিপল ডেস্কঃ ইদের খুশির দিনেই বিষণ্ণতা নেমে এল কামারহাটির হোসেন পরিবারে। স্ত্রীকে মেরে আত্মঘাতী হলেন পেশায় বাসচালক সাজিদ হোসেন। ঘটনাটি ঘটেছে কামারহাটির ধোবিয়া বাগান এলাকায়।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

সোমবারে একদিকে যখন গোটা পৃথিবী ইদ আনন্দমুখর উৎসবে মেতে উঠেছে। তখনই ধোবিয়া বাগান এলাকার হোসেন পরিবারে একটি ঘটনা ম্লান করে দিল ইদের উৎসবকে। পেশায় বাস চালক সাজিদ হোসেন আচমকাই তাঁর স্ত্রীর গলায় ছুরি বসিয়ে দেন। পাশাপাশি নিজের শিরা কেটে আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টাও করেন তিনি।

সূত্রের খবর, ইদের দিন সকাল থেকে সাজিদ ঘরবন্দি অবস্থায় থাকায় সন্দেহ হয় সবার। অনেকবার ডাকা হলেও দরজা খোলেননি তিনি। অবশেষে প্রতিবেশীরা দরজা ভেঙে দেখেন, রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন সাজিদের স্ত্রী রেহানা পারভিনকে । তাকে তৎক্ষনাৎ নিয়ে যাওয়া হয় সাগরদত্ত মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

পারভিনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় আচমকাই পুকুরে ঝাঁপ মারেন সাজিদ। বেশ কিছুক্ষণ খোঁজাখুঁজির পর উদ্ধার করা যায়নি তাকে। অবশেষে বেলঘড়িয়া পুলিশের তৎপরতায় পুকুর থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার হয়। 

এই ঘটনার পরই উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন, কী কারণে ঘটল এই ঘটনা? বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জের নাকি অন্য কিছু ? ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।