দ্য পিপল ডেস্কঃ পুজোর মুখে পাহাড়ে ১২ ঘন্টার বন্‌ধ। যার জেরে সমস্যার পড়তে হয়েছে পাহাড়ে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদের।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে ২০ শতাংশ বোনাস বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে আসছেন চা বাগানের শ্রমিকরা। দাবি পূরণ না হওয়ায় ১২ ঘন্টার দার্জিলিং বনধের ডাক দিয়েছে চা বাগানের কর্মীরা, নেতৃত্বে চা শ্রমিকদের যৌথ মঞ্চ জয়েন্ট ফোরাম।

ভোর ৪টে থেকে বিকেল ৪টে পর্যন্ত চলে বনধ। দুর্গাপুজোয় প্রত্যেক বছর বোনাস পান চা শ্রমিকরা। ষষ্ঠীর সকাল পর্যন্ত বোনাস না মেলায় ক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। সেই সঙ্গে শ্রমিকদের দাবি মেনে ২০ শতাংশের বদলে ১৫ শতাংশ বোনাস দিতে চেয়েছে বাগান কর্তৃপক্ষ। এনিয়েই সমস্যার সূত্রপাত।

শুক্রবার সকাল থেকে পাহাড়ের বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার নিয়ে মিছিল করে বিক্ষোভ দেখায় চা বাগান কর্মীরা। যে কোনো সমস্যা থেকে এড়াতে পাহাড়ে প্রচুর পরিমাণ নিরাপত্তা মোতায়েন করে প্রশাসন।

শ্রমিক সংগঠনের ডাকা বনধে পাহাড়ে বেশ প্রভাব পড়েছে। বেশিরভাগ দোকান, বাজার বন্ধ থাকতেই দেখা যায়।  

জয়েন্ট ফোরামের ডাকা বনধকে সমর্থন জানিয়েছেন দার্জিলিংয়ের বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা, বিমল গুরুং, বিনয় তামাং, মন ঘিসিং।

দার্জিলিংয়ে বন্ধ হয়ে যাওয়া চা বাগান খুলতে উদ্যোগ নিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখনও বন্ধ হয়ে আছে ৪ টি বাগান। তার ওপর বনধ। ব্যবসায়িক ক্ষেত্রেও এর প্রভাব পড়বে বলাই বাহুল্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here