ফণীর জন্য রাজ্য সরকার ও প্রশাসনের বিশেষ ব্যবস্থা

0
611

দ্য পিপল ডেস্কঃ  ওড়িশার পর প্রবল বৃষ্টি সহ প্রায় ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার বেগে এ রাজ্যে দিকে ধেয়ে আসবে ফণী। তার জন্য আগাম প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছে রাজ্য প্রশাসন।

মঙ্গলবার থেকেই রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সতর্কতার পাশাপাশি আলোচনা চলেছে কীভাবে মোকাবিলা করা যাবে এই সুপার সাইক্লোনের। বৃহস্পতিবার নবান্নে জরুরি বৈঠকে একাধিক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বৈঠকে বসেন কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিমও।

দেখে নিন কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে-

১. ভারতীয় মৌসম ভবন জানিয়েছে, এ রাজ্যে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা। উল্লেখযোগ্য- উত্তর ২৪ পরগণা, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, হাওড়া, হুগলি, কলকাতা।

২. জরুরি ভিত্তিতে কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্য পুলিশ, কলকাতা মিউনিসিপাল, প্রতিরক্ষা, এনডিআরএফ, সশস্ত্র বাহিনী, হাসপাতাল, স্বাস্থ্য বিভাগকেও। কলকাতা পুরসভার জরুরি ভিত্তিতে কাজ করেন এমন সমস্ত আধিকারিকের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

৩. ১৪ জুন পর্যন্ত নদী ও সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

৪. যত দ্রুত সম্ভব রাজ্যের সমস্ত উপকূল অঞ্চল থেকে পর্যটক সহ সাধারণ মানুষদের সরে যেতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে

৫. সমস্ত জেলায় ইতিমধ্যে প্রাথমিক অবস্থায় ত্রাণ শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে এবং ত্রাণ সামগ্রী পাঠানো শুরু করে দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

৬. দীঘা, কাকদ্বীপ, ধামাখালি, বসিরহাট, খড়গপুর ও সাঁকরাইল, এই ৬ জায়গায় এনডিআরএফ-এর পক্ষ থেকে দুর্যোগ মোকাবিলার ৬ টি বিশেষ দল পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

৭. নবান্নর বিশেষ নির্দেশে বাসন্তী, কাঁথি, হলদিয়া ও আরামবাগ, এই ৪ জায়গায় এসডিআরএফ-এর পক্ষ থেকে ৪ টি দুর্যোগ মোকাবিলার দল পাঠানো হয়েছে।

৮. কুইক রেসপন্স টিম পৌঁছতে শুরু করেছে উত্তর ২৪ পরগণা, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, হাওড়া, হুগলিতে।

৯. হাসপাতাল, স্বাস্থ্য পরিষেবার মতো জরুরি ব্যবস্থা জারি রাখার ঘোষণা করা হয়েছে।

১০. ২ মে থেকে ৫ মে পর্যন্ত নবান্নে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। হেল্পলাইন নম্বর- ০৩৩ ২২৫৩৫১৮৫।

১১. ৩, ৪ ও ৫ মে সমস্ত ফেরি যোগাযোগ বন্ধ রাখার আবেদন জানানো হয়েছে।

১২. উপকূলবর্তী অঞ্চলে  কাঁচা বাড়িতে বাস করেন এমন মানুষদের সরিয়ে ত্রাণ শিবিরে নিয়ে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

১৩. কলকাতা পুরসভা অঞ্চলে ঝড় পড়ে যাওয়া গাছ কাটার জন্য বিশেষ মেশিনের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here