রাজ্যের পরবর্তী রাজ্যপাল হচ্ছেন কিরণ বেদী!

0
126

দ্য পিপল ডেস্কঃ চলতি বছরে ২৩ জুলাই মেয়াদ ফুরোতে চলেছে রাজ্যের বর্তমান রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর। পরবর্তী রাজ্যপাল কে হবেন তা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে জল্পনা। শোনা যাচ্ছে, নতুন রাজ্যপাল হতে পারেন কিরণ বেদী।

কেন কিরণ বেদী?

জল্পনা, কেশরীনাথের কাজে খুশি নয় কেন্দ্রীয় সরকার তাই তাঁর পদে ‘কড়া ধাঁচের প্রশাসক’ বসাতে চাইছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সেই সঙ্গে এরাজ্যের বর্তমান যা পরিস্থিতি তার সঙ্গে যুঝতে কিরণ বেদীর মতো ‘অ্যাক্টিভিটিস’ চাইছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।  

কিরণ বেদী দেশের প্রথম মহিলা পুলিশ অফিসার। ১৯৯৩ সাল থেকে তিনি প্রশাসকের ভূমিকায় কাজ করছেন। তাঁর দীর্ঘদিন প্রশাসনিক পদে কাজ করার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চাইছেন নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহরা। কিরণ বেদী বর্তমানে পদুচেরির ‘লেফটেন্যান্ট গভর্নর’ পদে আছেন।

কেশরীনাথ ত্রিপাঠী আবার কেন নন?

লোকসভা ভোটের প্রচারে এসে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বারবার প্রশ্ন তুলেছেন এ রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে। ভোটের পর, ফল প্রকাশের পরও রাজ্যে অশান্তির চিত্রটা একই রকম। কিন্তু কোনওরকম মন্তব্য বা ভূমিকা নিতে দেখা যায়নি রাজ্যপালকে।

রাজ্যপালের কাজে খুশি হতে পারছেন না কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তাই তাঁর কাজের মেয়াদ বাড়াতে চাইছে না কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বরং প্রশাসনিক দিক থেকে রাজ্য সরকারকে চাপে রাখতে আনতে চাইছেন কিরণ বেদীকে।  

দিন দুয়েক আগে দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে দেখা করে ৪৮ পাতার রিপোর্ট পেশ করেছেন রাজ্যপাল।    

২০১৪ সালে জুলাই মাসে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর এ রাজ্যের রাজ্যপাল হয়ে আসেন কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। চলতি বছরে আর কয়েকদিনের মধ্যেই শেষ হতে চলেছে তাঁর কাজের মেয়াদ।

এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চাপে রাখতে, বলা ভালো ২০২১ এর বিধানসভা ভোটকে পাখির চোখ করে এগোতে চাইছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সেদিক থেকে আরও এক নয়া পদক্ষেপ হতে পারে যদি কিরণ বেদীকে এ রাজ্যের রাজ্যপাল পদে বসানো হয়।   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here