মুখ্যমন্ত্রীর ‘বখাটে তত্ত্ব’ কতটা কাজে আসতে পারে

0
47

দ্য পিপল ডেস্কঃ এনআরএস কাণ্ড নিয়ে রাজ্য-রাজনীতি রীতিমত উত্তপ্ত। যে আগুনের আঁচ লেগেছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তেও। পথে নেমেছেন বিদ্বজ্জন থেকে ডাক্তাররা। সবার আবেদন একবার এনআরএস-এ আসুন মুখ্যমন্ত্রী। ঠিক এই সময় কাঁচরাপাড়ায় মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে যেন সেই আগুন আরও উসকে দিল।

আজ কাঁচরাপাড়ায় সভা করতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বখাটে ছেলেদের নিয়ে আসুন চাকরি দেব। এতেই যেন আগুনে আরও একবার ঘি ঢাললেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে তাঁর বক্তব্য নিয়ে।   

এ প্রসঙ্গে কংগ্রেস বিধায়ক মিলটন রসিদ বলেন, বেকারদের সমস্যা না মিটিয়ে বেকারদের নিয়ে রাজনীতি করছেন মমতা। বাম নেতা সুশান্ত ঘোষ বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর ওখানে হাজির হওয়া উচিত ছিল। ৪ ঘন্টার মধ্যে দেখে নেওয়ার হুমকি দেওয়ার ফল বুঝতে পারছেন এখন। ওঁর ভুল ধরার ক্ষমতা কারো নেই।     

লোকসভা ভোটে ভরাডুবির চিত্র দেখেছে তৃণমূল দল। তার পর থেকে শুরু হয়েছে দল বদলের পালা। একের পর এক দলীয় নেতা, কর্মীরা তৃমমূল ছেড়ে যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে।

এক্ষেত্রেও দলের ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামতে হয়েছে সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।  পুরনো নেতাদের ডেকে এনে নতুন করে দলকে দাঁড় করাতে চাইছেন তিনি। বখাটেদের ডেকে এনেও কী এখন সেই ক্ষতে প্রলেপ দিতে হবে, উঠছে প্রশ্ন।

রাজ্যে যখন এনআরএস কাণ্ড নিয়ে ধুন্ধুমার অবস্থা, কার্যত শিকেয় উঠেছে চিকিৎসা পরিষেবা, বার বার অবস্থান থেকে আওয়াজ উঠছে মুখ্যমন্ত্রী অন্তত একবার এসে তাঁদের সঙ্গে কথা বলুন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন বিষয়টির সমাধান সূত্র বের করতে।

একই দাবিতে বিদ্বজ্জনেরা পথে নেমেছেন। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী এই সব কিছুকে উপেক্ষা করে কাঁচরাপাড়ায় সভা করতে গেলেন।  

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দ্বিতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হবার পরও একাধিক বার রাজ্যের মানুষ আন্দোলনের চিত্র দেখেছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল চাকরির দাবিতে এসএসসি ছাত্রছাত্রীদের অনশন। সেখানেও অনশনরত পড়ুয়াদের দাবি ছিল, মুখ্যমন্ত্রী এসে তাঁদের সঙ্গে দেখা করুন।

দীর্ঘ অনশনের পর সে দাবি রাখতে একপ্রকার বাধ্যে হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কোনও সমাধান সূত্র এখনও পর্যন্ত বেরিয়ে আসেনি।

অন্যদিকে ডিএ সংক্রান্ত মামলা নিয়েও জেরবার রাজ্য সরকার। দীর্ঘদিন ঘরে ডিএ বাড়ানো হচ্ছে না, তা নিয়েও ক্ষুদ্ধ সরকারি চাকরিজীবীরাও।

এমন অবস্থায় মুখ্যমন্ত্রীর ‘বখাটে তত্ত্ব’ বিরূপ প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন অভিজ্ঞমহল।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here