দ্য পিপল ডেস্কঃ ত্রিপুরা থেকে নির্বাচিত তথা সিপিএমের রাজ্যসভার সাংসদ ঝর্ণা দাস বৈদ্যকে সরাসরি দলত্যাগের আহ্বান জানিয়ে বিতর্কে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সাংসদ সেই আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেন। এরপরেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী তাঁকে ‘সরি’ বলেছেন।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

ত্রিপুরা পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে। অভিযোগ নির্বাচনে ৮৫ শতাংশ আসনেই বিরোধী বামপন্থীদের প্রার্থী দিতে দেওয়া হয়নি। সেই বিষয়টি নিয়ে সাংসদ ঝর্ণা দাস বৈদ্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি চান।অভিযোগ, তাঁকে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করিয়ে অবশেষে সময় দেন অমিত শাহ।

এরপর সাক্ষাতের মাঝেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সরাসরি বলেন- ত্রিপুরায় কমিউনিস্টদের দিন শেষ হয়ে গিয়েছে। আপনি আমাদের সঙ্গে চলে আসুন।চমকে যান বাম সাংসদ। ঝর্নাদেবী পাল্টা জানান, এমন কিছু সম্ভব নয়। কারণ সিপিএমের একজন সদস্য থাকলেও আপনাদের বিরুদ্ধে লড়াই চলবে। ঝর্ণাদেবী জানান, তিনি বিজেপির সভাপতির সঙ্গে দেখা করতে আসেননি। এসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে। এই সময় ঝর্ণাদেবীর সঙ্গে ছিলেন কেরলের বাম সাংসদ টিকে রঙ্গরাজন। ফলে অস্বস্তি আরও বাড়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। তিনি দ্রুত ত্রিপুরার বাম রাজ্যসভার সাসংদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন।

আগামী ২৭ জুলাই ত্রিপুরায় পঞ্চায়েত নির্বাচন। টানা দু দশকের বেশি সময় থাকা বামপন্থীদের সরিয়ে রাজ্যে ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি। লোকসভার দুটি আসনেই তারা জয়ী। পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি একাই ৮৫ শতাংশ আসনে জয়ী। অভিযোগ, বিরোধীদের হুমকি দিয়ে প্রার্থী হতে বাধা দেওয়া হয়েছে। রাজনৈতিক সংঘর্ষে রক্তাক্ত ত্রিপুরা।