দ্য পিপল ডেস্কঃ উত্তপ্রদেশে জমি দখলকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সোনভদ্র। পুলিসের গুলিতে নিহত হন ১১ জন। শুক্রবার আহতদের দেখতে যান কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এরপরেই নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে সোনভদ্রের পথে রওনা দেন তিনি। মির্জাপুরের নারায়নপুর চৌকির কাছে তাঁকে বাধা দেয় পুলিশ। দেখানেই ধর্নায় বসেন কংগ্রেস নেত্রী। কেন তাঁর পথ আটকে দেওয়া হল? তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন প্রিয়াঙ্কা। এপ্রসঙ্গে বিজেপির কটাক্ষ সস্তার রাজনীতি করছেন প্রিয়াঙ্কা ।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

অন্যদিকে, ঘটনার প্রতিবাদের আঁচ ছড়িয়ে পড়ে শহর কলকাতায়। শুক্রবার গান্ধী মুর্তির পাদদেশে মোমবাতি মিছিলে শামিল হন তৃণমূল নেতা-নেত্রীরা। শনিবার তৃণমূলের একটি প্রতিনিধি দল সোনভদ্র রওনা দেবে বলে জানিয়েছেন চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য্য।   

উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রা জেলার উভা গ্রামের ঘোরোয়াল এলাকায় ৯০ বিঘা জমিকে কেন্দ্র করে বুধবার বিবাদের সৃষ্টি হয়। ঘটনায় প্রাণ হারান ১১ জন। আহত হন প্রায় ১৫ জন। নিহতদের মধ্যে ৩ জন মহিলা।

পুলিশ সুত্রের খবর, ওই ৯০ বিঘা জমির মালিক ছিলেন এক আইপিএস অফিসার। পরে ওই জমি গ্রাম প্রধান যজ্ঞ দত্তকে বিক্রি করে দেন তিনি। বুধবার ১০ থেকে ১২ টি ট্রাক্টর নিয়ে জমি দখল করতে যান গ্রাম প্রধান। তাঁদের বাধা দেন স্থানীয়রা। সেখান থেকেই ঘটনার সুত্রপাত। অভিযোগ, এরপর বিবাদ চরমে পৌঁছালে স্থানীয়দের ওপর বোমা ও গুলি চালাতে শুরু করে গ্রাম প্রধান ও তাঁর সঙ্গীরা। প্রাণ হারান ১১ জন।

পুলিশ সুত্রের খবর, গ্রাম প্রধানের দুই ভাইপোকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজ চলছে।