দ্য পিপল ডেস্কঃ রাত গাঢ় হলেই শুরু হয় নিশিখেলা। কখনও নারীর শরীর সমুদ্রে সাঁতার কাটেন পুরুষ। কখনওবা ঠিক তার উল্টো। পুরুষের শরীরে হীরে-জহরতের খোঁজে নামেন নারী। এই সময় দুজনেই বলেন ভালোবাসার কথা। তবে এ কথায় প্রাণ কইয গবেষকদের মতে, লোকসমাজে যে কথা উচ্চারণ করা যায় না, সবার সামনে যে কথা বললে লজ্জায় রাঙা হয়ে যান মেয়েরা, বিছানায়, রতিক্রীড়ার সময় সেই কথাই শুনতে কান খাড়া করে রাখেন তাঁরা। সাম্প্রতিক এক গবেষণায়ই উঠে এসেছে এই তথ্য।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

সম্প্রতি ব্রিটেনের একটি সংস্থা পাঁচ হাজার নারী-পুরুষের ওপর সমীক্ষা চালিয়েছিল। শরীরি খেলার সময় কে কীরকম কথা বলেন, কী কথা বললে যৌনউত্তেজনা আরও বেশি হয়, সেসব প্রশ্নই তাঁদের করা হয়েছিল। দেখা গিয়েছে, সেক্স করার সময় যৌন উত্তেজনামূলক কথাবার্তাই বেশি পছন্দ করেন মেয়েরা।

কী ধরনের কথা শুনতে ভালোবাসেন মেয়েরায সমীক্ষকরা ওই নারী-পুরুষদের কাছেও জানতে চেয়েছিলেন এসব কথা। জানা গিয়েছে, শরীর সংক্রান্ত কথাই বেশি শুনতে ভালোবাসেন রতিক্রীড়ার সময়। মেয়েরা সব চেয়ে বেশি পছন্দ করেন, তোমার যোনিটা খুব সুন্দর। তোমার স্তনগুলো মাখনের মতো নরম কিংবা স্তন দুটো খুব সুন্দর এসব কথাও শুনতে ভালোবাসেন মেয়েরা।

যেসব মহিলা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন যোনি সংক্রান্ত কথা তাঁরাই বেশি শুনতে ভালোবাসেন। যেহেতু তাঁদের যোনি শিথিল হয়ে গিয়েছে, তাই যৌনাঙ্গ সংক্রান্ত কথাই তাঁরা বেশি শুনতে ভালোবাসেন। এতে তাঁদের কামোত্তেজনা বাড়ে।

অধর নিয়ে ভালো ভালো কথা শুনতেও ভালোবাসেন মেয়েরা। তোমার ঠোঁট খুব রসালো, তুমি খুব সেক্সি, সঙ্গমের সময় এসব কথাও তাঁরা শোনেন কান পেতে।

সমীক্ষকরা দেখেছেন, ব্রিটিশ মেয়েদের সিংহভাগই ওপেন সেক্স করতে পছন্দ করেন। নির্জন সমুদ্র সৈকত, পাহাড়ের কোল, জঙ্গল, সুইমিং পুল সেক্স করার জন্য তাঁদের কাছে আদর্শ বলে বিবেচিত হয়। 

সিংহভাগ মেয়েই চান, তাঁর পুরুষ সঙ্গীটি তাঁর যোনি দেখুক ঘুরিয়ে ফিরিয়ে। বিলি কাটুক যৌন কেশে। হাত দিয়ে নাড়াচাড়া করুক স্তন। হাত বোলাক তাঁর পেটে, নিতম্বে। আর সঙ্গে সঙ্গে বলুক তোমার যোনি সব মেয়ের চেয়ে বেশি সুন্দর। তোমার স্তন দুটো কি সুন্দর! তোমার নিতম্বের মতো নিতম্ব তো আমি দেখিইনি!গবেষকদের মতে, এসব কথায় দ্রুত উত্তেজিত হন মেয়েরা। তখনই ঝাঁপিয়ে পড়ে মিলনে। তার পর তাঁরা চান উত্থিত পুরুষাঙ্গ মন্থন করুক যোনি। যোনি সমুদ্র থেকে চলকে চলকে বের হোক অমৃত।