দ্য পিপল ডেস্কঃ দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের সভাপতির পদের পর পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূলের জেলা সভাপতির পদ থেকে অপসারিত শিশির অধিকারী।

দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের সভাপতির পদে বসানো হয়েছে।

বর্তমানে পূর্বমেদিনীপুরে তৃণমূলের জেলা সভাপতির আসনে বসলেন সৌমেন মহাপাত্র।

সূত্রের খবর, সোমরাতে রাতে দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের সভাপতির পদ থেকে শিশির অধিকারীকে অপসারণের নির্দেশিকা জারি করে রাজ্য।

এই বিষয়ে অখিল গিরি বলেন, শিশিরবাবু কোনওদিন কোনও কাজ করেননি। সেই কারণেই সম্ভবত এই সিদ্ধান্ত।

এরপরেই রীতিমতো হুঙ্কার দিয়েছেন শিশির–পুত্র শুভেন্দু অধিকারী।

এদিন শুভেন্দু বলেন, যাঁরা তাঁকে সরিয়েছেন মে মাসে তাঁদেরই পশ্চিমবঙ্গ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালে তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে কাজ করে এসেছেন বরিষ্ঠ সাংসদ শিশির অধিকারী।

তাঁর মেজো ছেলে শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করার পর ছেকে জল্পনা ছড়াতে শুরু করে।

শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করার পরেই পদ্মশিবিরে নাম লেখান ছোট ছেলে সৌমেন্দু।

এরপরেই প্রশ্ন ওঠে, তাহলে কী দুই ছেলের হাত ধরে এবার কাঁথির অধিকারী বাড়ির কর্তাও পদ্মশিবিরে যোগ দিতে চলেছেন?

রাজ্য রাজনীতিতে শুরু হয়েছে জল্পনা।