হোয়াটসঅ্যাপ -এ আড়ি পাতছে অন্য কেউ, কি করণীয় ?

0
49

দ্য পিপল ডেস্কঃ নজর রাখা হচ্ছে আপনার হোয়াটসঅ্যাপে। আপনার অজান্তেই অজানা এক কোম্পানির নজরদারীর অধীনে ব্যক্তিগত হোয়াটসঅ্যাপ । ব্রিটেনের এক সংবাদপত্র এই প্রতিবেদন প্রকাশ করার পরই অভিযোগ স্বীকার করল আমেরিকান সোশ্যাল জায়েন্ট অ্যাপ ফেসবুক।

ফেসবুকের তরফে জানানো হয়, হোয়াটস অ্যাপে কল করার সময়ে একটি অবাঞ্ছিত অ্যাপ স্বয়ংক্রিয়ভাবেই মোবাইলে ইনস্টল হয়ে যাচ্ছে। সেই অ্যাপই গোয়েন্দা সফটওয়্যারের মতো ব্যক্তিগত তথ্য পাচার করছে ইসরায়েল কোম্পানির কাছে। তবে এই অ্যাপটি ইনস্টলড হবে তখনই, যখন কলটি রিসিভ হবে না । এমনটাই তথ্য উঠে এসেছে ব্রিটেনের এক সংবাদপত্র থেকে।   

রিপোর্ট কি বলছে ?

প্রকাশিত রিপোর্টে জানানো হয়েছে, কতজনের মোবাইল হ্যাক হয়েছে এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোন উত্তর পাওয়া যায়নি ফেসবুকের তরফে। এই সমস্যা দূর করতে রবিবার থেকেই চরম ব্যস্ততার মধ্যে ছিল ফেসবুকের ইঞ্জিনিয়াররা । তবে শীঘ্রই সমস্যা দূর করবে বলে আশ্বস্ত করা হয়েছে মার্কিন কোম্পানির তরফে।

তবে আপাতত নিজের হোয়াটস অ্যাপকে সুরক্ষিত করতে আপডেট করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এরপর যদিও কোনও অবাঞ্ছিত অ্যাপস ডাউনলোড হলে সেটি তৎক্ষনাৎ মুছে বা ডিলিট করুন।

বিশ্বের বৃহত্তম সোশ্যাল মিডিয়া, ফেসবুক স্বীকার করে নিয়েছে যে তাদের মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপের একটি ভুলে ব্যবহারকারীদের ফোনে একটি গোয়েন্দা সফটওয়্যার ইনস্টল হয়ে গিয়েছে ।

কিভাবে ইন্সটলড হয় এই বিপজ্জনক অ্যাপটি?

ব্রিটেন এর সংবাদপত্র এর রিপোর্ট অনুযায়ী এই সফটওয়্যারটি ছড়িয়েছে ইজরায়েলের এক কোম্পানি । এই সফটওয়্যারটি হোয়াটসঅ্যাপে কল করার সময় কল রিসিভ হলে নিজে থেকেই ইনস্টল হয়ে যায়।

রিপোর্ট অনুযায়ী যদি কোনো ব্যবহারকারী কলের উত্তর না দেয় তখনই এই সফটওয়্যারটিকে ইনস্টল করা সম্ভব। কানাডিয়ান গবেষকদের মতে, এই গোয়েন্দা সফটওয়্যারটি মানবাধিকার কর্মী ও উপদেষ্টামণ্ডলীকে তার নিশানা বানিয়েছে।

রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে এই সমস্যা দূর করার জন্য ফেসবুক ইঞ্জিনিয়াররা রবিবার পৰ্যন্ত চরম ব্যস্ত ছিল। ফেসবুক থেকে জানানো হয়েছে তাদের কাছে কোনো সঠিক তথ্য নেই কতজনের ফোনে এটি ইনস্টল হয়েছে। তবে অনুমান করা হচ্ছে এই সাইবার হামলা বিশেষ বিশেষ লোকের উপরই করা হয়েছে।

আপনার কি করণীয় :

এখানে প্রশ্ন আসতে পারে এই মুহূর্তে তবে আমাদের কি করণীয়?

  • ফোনের হোয়াটসঅ্যাপ তাড়াতাড়ি আপডেট করে নিন।
  • এরপর আপনার ফোনের ডাউনলোড ম্যানেজারে গিয়ে দেখুন এই ধরণের কোনো অজানা সফটওয়্যার ডাউনলোড হয়ে আছে কিনা।
  • যদি থেকে থাকে তৎক্ষণাৎ ডিলিট করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here