দ্য পিপল ডেস্কঃ করোনা পরিস্থিতিতে অনেক শ্রমিক এবং দিন আনি দিন খাই মানুষের মুখে অন্ন জুটছে না। এই পরিস্থিতিতেই এগিয়ে এলেন মাস্টার ব্লাস্টার।

বৃহত্মুম্বই মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের ৪০০০ জনকে আর্থিক সাহায্য করতে চলেছেন মাস্টার ব্লাস্টার। শুধু খাওয়া নয়, আর্থিক ভাবে সাহায্য় করতে এগিয়ে এলেন লিটল মাস্টার।

শুধু বড়রা নয়, মাস্টার ব্লাস্টারের সাহায্য পাবেন শিশুরাও। মুম্বই-এর একটি এনজিও, হাইফাইভের মাধ্যমে আর্থিক সাহায়তা পাঠাবেন সচিন তেন্ডুলকর।

ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল এবং মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২৫ লক্ষ টাকা করে দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা আইকন। পাশাপাশি মানুষের মধ্যে সচেতনতা ফেরানোর চেষ্টা করছেন সচিন।

মানুষ যাতে অকারণে রাস্তায় না বেরোয় সেই জন্যেও দেশের নাগরিকদের কাছে আবেদন করছেন লিটল মাস্টার। ইতিমধ্যেই দেশের করোনা আক্রান্তের মৃত্যুর সংখ্যা ১৯০০ ছাড়িয়ে গেছে।

যেভাবে দিনে দিনে ছড়িয়ে পড়ছে তাতে মানুষ রাস্তায় বেরোনো বন্ধ না করলে, করোনার বিরুদ্ধে মোকাবিলা করা সম্ভব নয়। এই পরিস্থিতিতে যেনতেন প্রকারেণ মানুষকে ঘরে রাখতে মরিয়া সরকার।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকের পর থেকে সচিনও সাধারণের উদ্দেশ্য বার্তা দিয়ে যাচ্ছেন, সকলে যাতে লকডাউন মেনে চলেন এবং গৃহবন্দী থাকেন।

সচিনের থেকে টাকা পাওয়ার পর মুম্বইয়ের এনজিও জানায়, আরও একবার ধন্যবাদ সচিন তেন্ডুলকর। এই দুঃসময় খেলোয়াড়ি মানসিকতা দেখানোর জন্য। তোমার আর্থিক সাহায্য আমাদের দ্বারা পৌঁছে যাবে শিশুসহ ৪০০০ জনের কাছে।

এরপর সচিন তেন্ডুলকর পাল্টা টুইট করে বলেন, দিন আনি দিন খাই মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আপনাদেরও ধন্যবাদ।