দ্য পিপল ডেস্কঃ বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি কেন করা হবে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলল সংঘ পরিবার। মুর্শিদাবাদে  স্ত্রী, শিশুপুত্র সহ এক আরএসএস কর্মী খুনের পর সংঘ পরিবার এই প্রশ্ন তুলল।

নৃশংস এই খুনের ঘটনার প্রতিবাদে বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি তুললেন আরএসএস নেতা তথা বিশ্ব হিন্দু পরিষদের আন্তর্জাতিক কার্যকরী সভাপতি অলোক কুমার।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সংস্থাকে তিনি বলেন, ওই খুনের ঘটনা প্রমাণ করে যে, পশ্চিমবঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বলে  কিছু নেই।বিরোধী শক্তিকে দমন করতে লুঠতরাজ, ধর্ষণ, খুন করছে শাসকদল।সুশাসন নেই।

এই পরিস্থিতিতে ভারতের সংবিধান মেনে কেন্দ্রীয় সরকার কেন পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করবে না বলে প্রশ্ন তোলেন অলোক কুমার।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের আন্তর্জাতিক কার্যকরী সভাপতি আরও বলেন, কেরলের থেকেও পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি খারাপ। বিপুলসংখ্যক আরএসএস কর্মীকে খুন করা হয়েছে।এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। ফলে আমি বলছি, যথেষ্ট হয়েছে। এবার হস্তক্ষেপ করুক কেন্দ্র। ওই খুন একটি ভয়াবহ ঘটনা। একজন বছর ৩৫-এর শিক্ষক, তাঁর স্ত্রী ও শিশুপুত্রকে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাঁর প্রশ্ন, ওই গৃহবধূ এবং শিশুটিকে খুনের কারণ কি? পশ্চিমবঙ্গে ভয়ের পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। বিরোধীদের টার্গেট করা হচ্ছে। সেখানে আইনশৃঙ্খলা বলে কিছু নেই উল্লেখ করে অলোক কুমার বলেন, আমি নিশ্চিত যে জাতীয়তাবাদীরা এই ধরনের আক্রমণকে রুখে দেবে এবং পরাজিত হবে তৃণমূল  সরকার।

উল্লেখ্য, বুধবার মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জ এলাকায় নিজের বাড়িতেই খুন হন আরএসএস কর্মী বন্ধুপ্রকাশ পাল, তাঁর স্ত্রী বিউটি মন্ডল পাল ও শিশুপুত্র অঙ্গন বন্ধু পাল।

  এদিন কলকাতায় ওই খুনের ঘটনার প্রতিবাদে সোচ্চার হন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহাও। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলার অবনতির প্রশ্ন তুলে মমতার সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন তিনি।

তিনি বলেন, এখনও পর্যন্ত পুলিশ এ ঘটনার কোনও তদন্ত শুরু করেনি।কেউ গ্রেফতার হয়নি।এ রাজ্যে জঙ্গলরাজ চলছে উল্লেখ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদত্যাগ দাবি করেন রাহুল সিনহা।

অন্যদিকে, এই খুনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে খুনিদের গ্রেফতার করার দাবি জানিয়েছেন জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here