দ্য পিপল ডেস্কঃ দূষণ থেকে বাঁচতে মাস্ক পড়লেন মাকালী। শুধু মাকালী নয়, মাস্ক পড়েছেন সাঁইবাবাও।

অবাক হলেও এই সত্যি ঘটনা ঘটেছে বারাণসীর একাধিক মন্দিরে। বারাণসী একাধিক মন্দিরে দেখা যাচ্ছে দেবী দুর্গা, হনুমানজি সহ সমস্ত মূর্তির মুখে মাস্ক লাগানো। বাদ পড়েনি শিবলিঙ্গও।

আসলে, দূষণের প্রকোপ থেকে বাঁচতে ও পরিবেশকে বাঁচানোর জন্য সবার আগে চাই সাধারণ মানুষের সচেতনতা।  

সচেতনতা বাড়াতেই ঠাকুরের মূর্তির মুখে মাস্ক পড়ানোর এই অভিনব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বারাণসী জুড়ে।

দূষণের মূলে মানব সমাজ। প্রকৃতির কথা না ভেবে নির্বিচারে সবুজ ধ্বংস করে ফেলা হচ্ছে। জলে আবর্জনা ফেলায় দূষণের পরিমাণ ক্রমশ বাড়ছে নদীর জলে।

সরকারি নিষেধের তোয়াক্কা না করেই হরিয়ানা, পাঞ্জাব সহ একাধিক জায়গায় চলছে ফসলের খড় পোড়ানো।

মারাত্মক দূষণের কথা ভুলে গিয়ে দীপাবলিতে বাজি পুড়িয়ে উত্সবে মেতেছে গোটা দেশ।  

এসবের প্রভাব যে মানুষের উপরই পড়ে তা মানুষ এখনও বুঝতে পারছে না।

সম্প্রতি, আলোচনার শীর্ষে উঠে এসেছে দিল্লির দূষণ। যা একপ্রকার ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। কিন্তু দিল্লির অবস্থা যে কোনো সময় অন্যান্য শহরেও দেখা দিতে পারে।

সাধারণ মানুষ তথা মানব সমাজকে শিক্ষা দিতেই বারাণসীর বিভিন্ন মন্দির কর্তৃপক্ষ ঠাকুরের মূর্তিতে মাস্ক পড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কারণ ঈশ্বরের নির্দেশ তাঁর ভক্তরা মানেন।

তাছাড়া, শীতকালে বিভিন্ন মন্দিরে দেখা যায় ভগবানের মূর্তির গায়ে চাদর, শাল জড়ানো। তাহলে দূষণে তিনি কেনো মাস্ক পড়বেন না?  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here