দ্য পিপল ডেস্কঃ রাজ্যের নতুন সংশোধনাগার তৈরী হয়েছে বারুইপুরের টংতলায়।তিনতলা বিশিষ্ট এই সংশোধনাগারে বন্দি সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে।

সংশোধনাগার তৈরীর প্রথম বছরেই এখানে দুর্গাপুজোর আয়োজন করেছেন বন্দিরা। তৈরী হয়েছে পুরোদস্তুর একটি পুজো কমিটিও। পুজো কমিটির দুই সভাপতি ইউসুউ গায়েন ও সজল চট্টোপাধ্যায় সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি।

পঞ্চমীর দিনেই সংশোধনাগারের অডিটোরিয়ামে চলে এসেছে মা দুর্গা। প্রতিমা গড়েছেন চন্ডীপুরের শিল্পী দিনবন্ধু মন্ডল।

পুজোর কটাদিন সংশোধনাগারের নিয়ম কিছুটা শিথিল করা হবে বলে জানিয়েছেন সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ। একসঙ্গে খাওয়া দাওয়া থেকে শুরু করে দেদার গল্প-আড্ডা-গানে মেতে উঠেছিলেন বন্দিরা। দশমী পর্যন্তই তাদের এই ছাড় দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

সপ্তমী থেকে দশমী পর্যন্ত থাকছে ভুরিভোজের ব্যবস্থাও। সপ্তমীতে মটন, অষ্টমী তে পায়েস, নবমীতে চিকেন এবং দশমীতে মিষ্টিমুখ তো থাকছেই।

সংশোধনাগারের এই প্রথমবারের পুজো নিয়ে উন্মাদনা রয়েছে বন্দিদেরও মধ্যেও। সুষ্ঠ ভাবে এই পুজো সমাপ্ত করতে সাহায্য করছেন কারা দফতরের কর্মী ও আধিকারিকরা।

পুজোর কয়েকটা দিন সাংস্কৃতিক উৎসবেরও আয়োজন ছিল। একদিকে যখন পুজোর আনন্দে মেতে উঠেছে আপামর বাঙালী থেকে শুরু করে অন্যান্যরাও, তখন পিছিয়ে নেই কারাগারে বন্দিরাও।

তবে পুজোর আনন্দের পাশাপাশি নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই পুজোর কয়েকটাদিন সংশোধনাগারের নিরাপত্তা দ্বিগুণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কারা আধিকারিকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here