মুর্শিদাবাদ থেকে ধৃত জঙ্গিরা, ফাইল ছবি

দ্য পিপল ডেস্কঃ রাজ্য থেকে ইতিমধ্যে সাতজন আলকায়দার জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা সংস্থা।

দিল্লি থেকে মূলত এই ধরনের কাজের পরিকল্পনা চলত বলে জানা গিয়েছে।

এর পর থেকেই সতর্ক রয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা। দেশবাসীকে সতর্ক থাকার কথা জানানো হয়েছে।

পরিস্থিতি নাগালের মধ্যে রাখতে করা সর্তকতা জারি করেছে তদন্তকারী সংস্থা।

সূত্রের খবর, দেশের বিমানবন্দরগুলিকে টার্গেট করেছিল আলকায়দা।

মুর্শিদাবাদের মতো দেশের বিভিন্ন জায়গায় সংগঠনকে শক্তিশালী করতে তৎপর ছিল জঙ্গিরা।

সংগঠন শক্তিশালী হলেই দিল্লি, কলকাতার মতো বিমানবন্দরের বড়োসড়ো নাশকতা ঘটানোর পরিকল্পনা করেছিল ধৃত জঙ্গিরা।

বিমানবন্দরে নাশকতা ঘটাতে চাইলে ভিতরকার পুরো বিষয়টি জানতে হবে।

সে জন্যই জঙ্গিদের বিমানে করে বিভিন্ন জায়গায় পাঠানো হতো।

জানা গিয়েছে জলঙ্গির মইনুল মন্ডল ও ইয়াকুব হোসেনকে বিমানবন্দরের খুঁটিনাটি জানার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।

দিল্লি বিমানবন্দরের খুঁটিনাটি জানার দায়িত্ব ছিল ইয়াকুবের উপর।

বিমানবন্দরে কোথায় নাশকতা ঘটালে বড় ধরনের ক্ষতি হবে তার দিকে নজর দিয়েছিল জঙ্গিরা।