রোদের ফাঁকে কাসাউলি, বসন্তের কলকাকলি

0
64

শুভ মন্ডল

চাঁদি ফাটা রোদে । তার মধ্যেই জীবনের ইঁদুর দৌড়ে সামিল হতে হয় সবাইকেই । ঘামে ভিজে রোজকার বাড়ি ফেরার রুটিন ছেড়ে চলুন না বেড়িয়ে পড়ি ।

প্রকৃতির খুব কাছাকাছি একাকিত্ব উপভোগ করার জায়গা । নিজের কাছের মানুষের সঙ্গেও সময় কাটিয়ে আসতেই পারেন ।  কোথায় যাবেন ভাবছেন তো !

Image Source: tripoto

নাঃ দী-পু-দা (দীঘা-পুরী-দার্জিলিং)-র কথা মোটেই বলব না।সন্ধান দেবো এমন একটা জায়গার যাকে ইংরাজিতে বলে ‘ভার্জিন ডেস্টিনেশন’ ।

Image Source : Veena World

অর্থাৎ, এখানে পর্যটকদের ভিড় কম । ফলে মেকি বিষয়গুলোও কম । দায়িত্বের বোঝাটাকে নামিয়ে প্রকৃতির কোলে বসে একটু জিরিয়ে নিন । আজকের ডেস্টিনেশন ‘ কাসাউলি ’ ।

কাসাউলি 01
Image Source : tourmyindia

চাঁদি ফাটা রোদে এক টুকরো শান্তি

ভারতের হিমাচল প্রদেশের সোলান রাজ্যের মধ্যে অবস্থিত একটা ছোটো শহর এবং ক্যান্টনমেন্ট কাসাউলি।

১৮৪২ সালে ব্রিটিশ আমলে এই শহরটি গড়ে উঠেছিল। এটি একটি কলোনিয়াল হিল স্টেশন ছিল।

কাসাউলি 02
Image Source : Booking

সিমলা থেকে ৭৭ কিলোমিটার, চন্ডিগড় থেকে ৬৫ কিলোমিটার, হরিয়ানার আম্বালা ক্যান্টনমেন্ট থেকে ৯৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই ছোটো শহর কাসাউলি।

Image Source:tourismofindia

এই চাঁদি ফাটা গরমে কয়েকদিনের জন্য ঘুরে আসার জন্য এটাই সবথেকে ভালো জায়গা।

হাওড়া থেকেঃ

কলকাতা থেকে বিমানে নিউ দিল্লি । কিংবা, ট্রেনে চড়ে নিউ দিল্লি । সেখান থেকে আম্বালা ক্যান্টনমেন্টের ট্রেন । স্টেশনে নেমে বাস কিংবা ভাড়া গাড়ি ।

Image Source : erail

কাসাউলি বাইক রাইডার্সদের স্বর্গ

মোট ১৭৫৬ কিলোমিটার । মাত্র ৪ দিনের পিট স্টপে পৌছে যাওয়া যাবে হিমাচলের কোলে ।

Image Source: xbhp

কাসাউলি -র দর্শনীয় স্থান

যদি বেশি ঠাণ্ডা পছন্দ না হয় আবার বেশি গরমও ভালো না লাগে তাহলে কাসাউলি আদর্শ স্থান। গরমকালে কাসাউলির আবহাওয়া থাকে বসন্তের মত।

Image Source: hellotravel

তবে মাঝে মাঝে তাপমাত্রা ৩২ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলে । কিন্তু চিন্তার কোনো কারন নেই সেটা খুবই কম সময়ের জন্য। কাসাউলিতে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ভ্রমনীয় স্থান:

কাম, ক্রস দ্য লাইন- তুমি চাইলেই পারো

১. গিলবার্ট ট্রেইল – চারিদিক সবুজে ঘেরা তারই মধ্যে দিয়ে দেড় কিলোমিটার বিস্তৃত একটি পাথুরে রাস্তা । এটিকে লাভার্স লেনও বলা হয়ে থাকে।

প্রিয়জনের সঙ্গে মর্তের স্বর্গপথে হাঁটার অনুভূতিই আলাদা ।

স্থান : গিলবার্ট নেচার ট্রেইল। কাসাউলি, কাসাউলি তেহেসিল।   ভ্রমণের সময় : সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত ।

২. সানসেট পয়েন্ট – যাদের ফোটোগ্রাফি হবি এবং সকালে উঠে সূর্য দেখার বাতিক রয়েছে। এই জায়গাটি তাঁদের জন্য আদর্শ।

Image Source : Allseasonsz

স্থান : আপার মলের কাছে। কাসাউলি, কাসাউলি তেহেসিল। ভ্রমণের সময় : সকাল ৮ টা  থেকে ৫ টা পর্যন্ত ।

৩. মাঙ্কি পয়েন্ট – বলা হয়, যখন শ্রী হনুমান লক্ষনের জন্য সঞ্জীবনী বুটি নিয়ে যাচ্ছিলেন তখন এই জায়গাতেই কিছুক্ষনের জন্য বিশ্রাম নিয়েছিলেন।

Image Source : Clicks And Tales

সেই ঘটনাকেই কেন্দ্র করে এই জায়গাতে একটি হনুমান মন্দিরও তৈরি হয়েছে। শুধু তাই নয়। এই জায়গাটি শহরের এয়ার ফোর্স স্টেশনও বটে।

স্থান : কাসাউলি, কাসাউলি তেহেসিল।ভ্রমণের সময় : সকাল ৯ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত ।

৪. সানরাইজ পয়েন্ট – এই জায়গাটিকে স্থানীয় জনগণ হাওয়া গড় বলে থাকে।

Image Source : travel d’globe

স্থান : গিলবার্ট ট্রেইল। কাসাউলি।ভ্রমণের সময় : সকাল ৫ঃ৫৫ থেকে সকাল ৭ টা পর্যন্ত।

৫. গুরখা ফোর্ট – ১৮০ বছর পুরনো এই ফোটর্টি ইতিহাস স্মরণ করিয়ে দেবে। গোর্খা যুদ্ধের জন্যই এই ফোর্টটি ব্যবহার হত।

Image Source: TravelTriangle

স্থান : সুবাথু টাউন।কাসাউলি, কাসাউলি তেহেসিল।ভ্রমণের সময় : সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

৬. টিম্বার ট্রেইল রিসোর্ট – কাসাউলি থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই রিসোর্টটি ছুটি কাটানোর জন্য আদর্শ। পাহাড়ের উপরে অবস্থিত রিসোর্টটি।

Image Source : hellotravel

স্থান : কাসাউলি হিল পারয়ানু।  ভ্রমণের সময় : সকাল ৭ টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত।

৭. সেন্ট্রাল রিসার্চ সেন্টার :  ব্রিটিশ আমলে এই সেন্টারটি তৈরি হয়েছিল । মিনিস্ট্রি অফ হেলথ এ্যন্ড ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার এটিকে পর্যবেক্ষন করে।

স্থান : সোলান কাসাউলি।

ভ্রমণের সময় : সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত।

প্রতিদিনের ব্যস্ততার মাঝে বেরিয়ে আসুন একবার কাসাউলি ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here