দ্য পিপল ডেস্কঃ দুর্গোৎসব শেষ হতেই এবার ধনলক্ষ্মীর আরাধনায় মেতে উঠতে চলেছে বাঙালি। রাত পোহালেই লক্ষ্মীপুজো। মৃৎশিল্পীদের তৈরি নানা রকমের প্রতিমা বাজারে চলে এসেছে আরও দুদিন আগে থেকেই। শিল্পীরা বাজারে এনেছেন পট কিংবা  সরা লক্ষ্মীর প্রতিমাও।

বাজার মন্দা থাকলেও পূর্বপুরুষদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে এখনও পট বা সরা লক্ষ্মী গড়ছেন কিছু পটুয়া। লুপ্তপ্রায় হতে থাকা এই শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে ক্রেতাদের কাছে নায্য মূল্য আশা করছেন শিল্পীরা।

মুখ ফিরিয়ে নেওয়া বর্তমান প্রজন্মকে এই শিল্পকলায় আকৃষ্ট করতে সরকারি পরিকল্পনার দাবিও তুলেছেন তাঁরা।

চাহিদা দিন দিন কমছে। বাধ্য হয়ে পেটের তাগিদে সামান্য লাভ রেখেই পট প্রতিমা বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন শিল্পীরা।

বালুরঘাট শহরের খিদিরপুর এলাকার পটশিল্পী অনিতা পাল, বাসুদেব পাল, বাপ্পা পালরা বলেন, কাঁচামালের দাম এবং আর্থিক প্রতিকূলতার মধ্যেও তাঁরা পটের ঠাকুর গড়ার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন শুধুমাত্র পূর্বপুরুষদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে।

শিল্পীদের দাবি, একেকটি পটপ্রতিমা বাজারজাত করতে খরচ  ২০-২৫ টাকা। অথচও তার দাম উঠেছে ২৫ থেকে ৩০ টাকার মধ্যেই। আগুন বাজারে ওই লাভের অঙ্কে পেট চালানো দায়। একপ্রকার বাধ্য হয়েই এই কাজ থেকে হাত গুটিয়ে নিচ্ছে বর্তমান প্রজন্ম।

শিল্পীদের কথায়,  বর্তমান প্রজন্ম এই সামান্য লাভে লক্ষ্মী কেন অন্য কোনো সরা বা পট প্রতিমা বানাতে চায় না। তারা  যুক্ত হয়ে পড়ছে অন্য পেশায়। তাই একদিন হারিয়ে যেতে পারে ঐতিহ্যের এই শিল্পকর্ম, আশঙ্কা শিল্পীদের।

এই শিল্পকে টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব সকলের বলেই দাবি তাঁদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here