দ্য পিপল ডেস্কঃ চাউমিনে পেঁয়াজ চাইতে গিয়ে মার খেতে হল বাবা ও মেয়েকে। অবাক করা ঘটনাটি ঘটেছে ক্যানিংয়ের নবারুণ সংঘ এলাকায়।

জানা গেছে, বাবার সঙ্গে ঠাকুর দেখতে বেরিয়ে স্থানীয় এক দোকানে চাউমিন খেতে বসেছিলেন মেয়ে সুরভী রায়। কিন্তু পেঁয়াজ ছাড়া কি চাউমিন খাওয়া যায়? তাই দোকানদারের কাছে পেঁয়াজ চেয়েছিলেন।

অভিযোগ, বার বার চাওয়ায় সুরভীর উপর বিরক্ত হয় দোকানদার। এর পরই রেগে গিয়ে গরম খুন্তি দিয়েই তাঁকে মারতে শুরু করে। একটু দূরে দাঁড়িয়ে থাকা বাবা সচিন রায় ছুটে এসে প্রতিবাদ জানাতেই তাঁকেও মারতে শুরু করে দোকানদার।

এর পরই পরিস্থিতি চরমে ওঠে। আশেপাশের লোকেরা জড়ো হতে শুরু করেন চাউমিনের দোকানের সামনে। জখম অবস্থায় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সচিন রায়কে।

ক্যানিং থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে সচিন রায়ের পরিবার। খাবারের দোকানের মালিক অভিযুক্তের শাস্তির দাবিও করেছেন সচিন রায়ের পরিবার।

উল্লেখ্য, দামের ঝাঁজে বাঙালির পাত থেকে একপ্রকার উধাও  পেঁয়াজ। দাম যেন বাড়তে বাড়তে মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরে বেরিয়ে গেছে। তাই টান পড়েছে উৎসবের খাবারেও।

উৎসবের দিনে যেন আরও বেড়েছে দাম। দামের কারণেই অনেক দোকানেই পেঁয়াজ মিলছে না। বাধ্য হয়েই যেন পেঁয়াজ ছাড়াই খাবার পরিবেশন করতে বাধ্য হচ্ছে খাবারের দোকান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here