দ্য পিপলডেস্ক- ভিন্নধরণের,ভিন্ন দামের জুতো আকছার দেখা যায় । তবে, দু লক্ষ টাকারও বেশি দামের জুতো মুহুর্তে বিকিয়ে গেল । এমনটা শুনেছেন কখনো ।

নাইকির জেসাস শু 01

নাইকির জেসাস শু

যিশুক্রিষ্টের নামে বাজারে জুতো এনেছে আন্তর্জাতিক স্পোর্টস শু প্রস্তুতকারী সংস্থা নাইকি । নাম রাখা হয়েছে জেসাস শু ।

নাইকির জেসাস শু 02

আসার কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই তা রীতিমতো হুড়মুড়িয়ে বিকিয়ে গেল । বিশেষ এডিশনের নাইকির সেই জুতোর দাম তিন হাজার আমেরিকান ডলার ।

নাইকির জেসাস শু 03

অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় ‘জেসাস শু’-এর দাম দু’লক্ষ টাকারও বেশি ।

কারা বানিয়েছে নাইকির জেসাস শু?

নাইকির জেসাস শু 04

নাইকির এয়ার ম্যাক্স ৯৭ বা ‘জেসাস শু’ তৈরি করেছে ব্রুকলিনের ক্রিয়েটিভ লেবেল এমএসসিএইচএফ ।

আর পাঁচটা জুতোর সঙ্গে জেসাস শু-এর ফারাক কোথায়?

জুতোর সবথেকে বড় বৈশিষ্ট হল-

জুতোর তলায় রয়েছে জল । জুতোর সোলের কাছে যেখানে এয়ার চেম্বার থাকে, এই জুতোর সেই জায়গায় রয়েছে জর্ডন নদীর ‘পবিত্র’ জল ।

তবে শুধু পবিত্র জলই নয় । রয়েছে বাইবেলের ভার্স ম্যাথিউ ১৪:২৫ ।

এই ভার্সে জলের উপর দিয়ে জিশুর হেঁটে যাওয়া বর্ণনা করা হয়েছে ।

জিশুখ্রিস্টের রক্তের দাগ বোঝাতে জুতোর উপরে রয়েছে লাল রঙের প্রতীকী রক্তবিন্দুও ।

স্বাভাবিক ভাবে ধর্মের মোড়কে জুতো বাজারে আসতেই তা হট কেকের মতো বিকিয়েছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here