তৃতীয় ফ্রন্ট কেন্দ্রে সরকার গড়বে, আশায় জল স্ট্যালিনের

0
66

দ্য পিপল ডেস্কঃ তৃতীয় ফ্রন্ট কেন্দ্রে সরকার গড়বে। এমন আশায় পুরোপুরি জল ঢেলে দিলেন ডিএমকে প্রধান এম কে স্ট্যালিন।

তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও বৈঠক করেন  ডিএমকে প্রধান এম কে স্ট্যালিনের সঙ্গে। সেখানেই স্ট্যালিন স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, তৃতীয় ফ্রন্ট সরকার গড়তে পারে এমন কোনও সম্ভাবনাই তিনি দেখছেন না।

স্ট্যালিনের বক্তব্য, কেন্দ্রে অকংগ্রেসি ও অবিজেপি সরকার গড়তে উদ্যোগী হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কোথাও আশার আলো দেখতে পাননি তিনি। তাঁর মনে এবারও কেন্দ্রে বিজেপি বা কংগ্রেসের প্রতিনিধি সরকার তৈরি হবে।

অন্যদিকে আজ তামিলনাড়ুর বিজেপি নেত্রীর কথায় নতুন জল্পনা শুরু হয়েছে যে স্ট্যালিন বিজেপির প্রতিনিধিদের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ করছেন সেজন্য তৃতীয় ফ্রন্ট গড়তে উত্সাহী নন। এমন মন্তব্য করেন তামিলনাড়ুর বিজেপি সভাপতি তামিলিসাই সুন্দরারাজন। সুন্দরারাজন আজ জানান, স্ট্যালিন বিজেপি নেতৃত্লের সঙ্গে কথা বলছেন এবং যোগাযোগ রাখছেন।

সে প্রশ্নের উত্তরে স্ট্যালিন পাল্টা জানান, যদি কেউ সুন্দরারাজনের বক্তব্য প্রমাণ করতে পারেন তাহলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন। আর যদি প্রমাণ না করা যায় তাহলে নরেন্দ্র মোদি ও সুন্দরারাজন যেন রাজনীতি ছাড়েন।

তবে অনেক আগেই রাহুল গান্ধিকে সমর্থন জানিয়ে রেখেছিলেন স্ট্যালিন। নিজের সেই ভাবনায় দৃঢ় থেকে স্ট্যালিন মনে করেন কেন্দ্রে এবার এনডিএ জোট সরকার গঠন করবে।

তবে পঞ্চম দফা ভোট শেষে তৃতীয় ফ্রন্ট গড়তে বেশ কাঠখড় পুড়িয়েছেন স্ট্যালিন। তৃতীয় ফ্রন্ট দড়ার লক্ষ্যে ছুটছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও। বৈঠক করেছেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের সঙ্গে, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামীর সঙ্গে, এসেছেন এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেও।

একই কারণে স্ট্যালিনের কাছেও এসেছিলেন তিনি। তবে সে আশায় যে একেবারে জল ঢেলে দিলেন স্ট্যালিন। তবে ২৩ মে ফল প্রকাশের পর তিনি আবার নতুন করে ভেবে দেখবেন, এমন বার্তাও দিয়ে রেখেছেন স্ট্যালিন।

তৃতীয় ফ্রন্ট গড়ে কেন্দ্রে নতুন সরকার গড়তে উদ্যোগী হয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তার বড় প্রমাণ বিগ্রেডে বিরোধী আঞ্চলিক দলগুলির সভা।   

বিজেপি এবার কেন্দ্রে একক সংখ্যা গরিষ্ঠ আসন পাবে না। ফলে নিরঙ্কুশ সরকার গড়তে ব্যর্থ হবে বিজেপি। এই ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন জল্পনা একাধিক নয়া সম্ভাবনাকে উসকে দিতে চাইছে। সেক্ষেত্রে ডিএমকে প্রধান এম কে স্ট্যালিন যে আলাদা ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে পারেন তা বলাই বাহুল্য।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here