দ্য পিপল ডেস্কঃ মুর্খের স্বর্গ থেকে বেরতে হবে, ইমরান সরকারকে সমালোচনা করলেন তাঁর সরকারেরই প্রতিনিধি। পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মহম্মদ কুরেশি এভাবেই কড়া বার্তা দিলেন একতরফা সিদ্ধান্ত নেওয়া পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

৩৭০ ধারা বিলোপ নিয়ে ভারত-পাক কূটনৈতিক দ্বন্দ্ব একপ্রকার চরমে পৌঁছেছে। পাক সরকার একের পর এক একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়ে বয়কট করে চলেছে ভারতের পণ্য পরিষেবা থেকে শুরু করে যোগাযোগ পরিষেবাও।

একই অভিযোগের ভিত্তিতে রাষ্ট্রসংঘ থেকে শুরু করে বিশ্বের একাধিক শক্তিধর রাষ্ট্র যেমন, চিন, রাশিয়া, আমেরিকা, ফ্রান্স, ব্রিটেনের দ্বারস্থ হয়েছে, যদিও বিশেষ ফল হয়নি। বরং সেদেশের রাষ্ট্রনেতারও ভারতের অভ্যন্তরীণ এবং দ্বিপাক্ষিক বিষয় বলেই নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন।  

ফলে পাক সরকারকে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে নিজের দেশেই। পণ্য সঙ্কটের পাশাপাশি আর্থিক মন্দা দেখা দিচ্ছে। বাড়ছে জিনিসপত্রের দাম। বিশ্বব্যাঙ্কে ঋণের বোঝা বাড়ছে পাকিস্তানের। অথচ পাক প্রধানমন্ত্রী নিজের সিদ্ধান্তে অনড়।   

এই সহজ সত্যটা বুঝে নিয়েছেন পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মহম্মদ কুরেশি। তিনি বলেন, আবেগপ্রবণ হওয়া সহজ, প্রতিবাদ করাও সহজ, কিন্তু বিষয় বুঝে এগিয়ে যাওয়া খুবই কঠিন। বুঝতে হবে যে, আপনার জন্য সবাই সব কিছু নিয়ে বসে নেই।

কুরেশি আরও বলেন, এমনকী মুসলিম দেশও ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলছে না, তার কারণ ভারতের মতো বড় দেশের বিশাল বাজার তারা কেউ হাতছাড়া করতে চাইছে না।        

এবার মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য বিদেশমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে মুখ লোকানো যেন দায় হচ্ছে ইমরান সরকারের। যদিও মুখে কুলুপ এঁটেছেন তিনি।