দ্য পিপল ডেস্কঃ বন্ধ করে দেওয়া হল সিপিআই(এম) নেতা মহম্মদ সেলিমের টুইটার অ্যাকাউন্ট। বিজেপি আইটি সেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন বর্ষীয়ান নেতা । বামেদের মুখবন্ধ করার এটা একটা ষড়যন্ত্র দাবী করেছেন তিনি।

বিষয়টি নিয়ে বাম নেতার মন্তব্য, গত ৫ অক্টোবর টুইটারে একটি পোস্ট করেন । সেখানে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর প্রসঙ্গ উল্লেখ করেন মহম্মদ সেলিম। তিনি বলেন, আমরা ছোট বেলা থেকে রামকৃষ্ণ, বিবেকানন্দ পড়েছি। তাঁরা সব সময় নিজ নিজ ধর্ম পালনের কথা বলেছেন। কিন্তু কখনই অপর ধর্মের মানুষের সঙ্গে হিংস্র আচরণের কথা বলেননি। তিনি জানিয়েছেন, এরকম মনোভাবাপন্ন মানুষকে বর্বর এবং কাপুরুষ বলতেন জ্যোতি বাবু। আমি সেই কথাই এদিনের টুইটারে তুলে ধরি। সেদিনের টুইটারের পোস্ট মেনে নিতে না পারায় সেটাকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বাম নেতা।

৫ ই অক্টোবরের ওই টূইটারের প্রসঙ্গ টেনেই বিজেপি আইটি সেলের তরফ থেকে অভিযোগ করে টুইটার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

শুধুমাত্র এখানেই থেমে থাকেননি বাম নেতা। তিনি আরও বলেন, নিয়মিত হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুকে কিছু ভিডিওর মাধ্যমে মানুষের মধ্যে হিংসা ছড়ানো হচ্ছে। সেদিকে সরকারের কোনও নজর নেই। জিয়াগঞ্জের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, আমরা জিয়াগঞ্জের ঘটনা দেখেছি। যেখানে তিন জনকে নৃশংস হত্যা করা হল। সেদিকে সরকারের কোনও নজর নেই। যারা সম্প্রীতির কথা বলছে তাঁদের মুখ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে বলে দাবী মহম্মদ সেলিমের।

এর আগে একাধিক বিষয় নিয়ে রাজ্য এবং কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গিয়েছে মহম্মদ সেলিমকে। এবারেও তিনি বলেন, শুধুমাত্র টূইটার বন্ধ করে বামেদের মুখ বন্ধ করা যাবে না। ধর্মের নামে যে বিভেদের রাজনীতি করা হচ্ছে তা থেকে সাধারণ মানুষকে দূরে থাকার বার্তা দিলেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here