সঙ্গম করতে কেন কষ্ট হয়?

0
40

দ্য পিপল ডেস্কঃ যৌনসঙ্গমে আনন্দই মেলে। অন্তত এমনই জানা ছিল সবার। তবে মিলন যে সব সময় মধুর হয়, তা কিন্তু নয়। জিগলোদের অভিজ্ঞতা অন্তত তেমনই বলছে।

মানুষ মাত্রেই পরকীয়ায় আগ্রহী। সুপ্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে পরকীয়ার চল। বউ কিংবা বর ছাড়াও অন্য কারও প্রেমে পড়েন নারী কিংবা পুরুষ।

তাতে নিত্য দিনের একঘেঁয়েমি যৌনজীবন থেকে যেমন রেহাই মেলে, তেমনি স্বাদ পাওয়া যায় নতুন শরীরের।আর নতুন জিনিসের প্রতি আগ্রহ তো সবারই, চিরকালীনও বটে।

এখন এই পরকীয়া কিন্তু সব সময় চালানো যায় না। তাই প্রয়োজন হয় নারী কিংবা পুরুষ দেহ ব্যবসায়ীদের। পয়সার বিনিময়ে যাঁরা চরিতার্থ করেন কামতৃষা।

পুরুষের কামক্ষুধা মেটাতে দেহ পশারিণী ছিলেন আগেও। কখনও পয়সা, কখনওবা স্রেফ ভালোবাসার বিনিময়ে পুরুষকে তুলে দিয়েছেন শরীর।

আর নারী শরীরের আকর্ষণে পুরুষ যে চিরকাল মজেছেন, তা কে না জানে? উন্নত স্তন, তানপুরার মতো নিতম্বের প্রেমে চিরকাল পড়েছে পুরুষ। সেই কারণেই স্বর্গেও এত কদর অপ্সরাদের!

তবে নারীর কামতৃষা মেটানোর পথ এতদিন ছিল না।সমাজের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে কোনও নারীর পক্ষেই সম্ভব ছিল না পরপুরুষের সঙ্গে শরীরি খেলায় মাততে।

তবে বর্তমানে যুগ বদলেছে।নারীও খুঁজে নিয়েছে কামসাধনের বিকল্প পথ। তার জেরেই সৃষ্টি হয়েছে সম্পূর্ণ নতুন একটি পেশার।

এই পেশাই জিগলো। আদতে এঁরা পুরুষ যৌনকর্মী। পয়সার বিনিময়ে নারীর কাম চরিতার্থ করেন এঁরা।

যে সব মহিলার স্বামী বিদেশে থাকেন, কিংবা কোনও কারণে স্বামীর সঙ্গে বনিবনা হচ্ছে না, কিংবা সময় পেরিয়ে গেলেও এখনও বিবাহ হয়নি, এমন নারীরাই খোঁজ করেন জিগলোদের।

ফি রবিবার পার্কস্ট্রিটের মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকেন এঁরা। মহিলারা গিয়ে পছন্দের জিগলোদের হাতে গুঁজে দেন ফোন নম্বর লেখা কাগজ। তার পর সময় সুযোগ বুঝে ডেকে নেওয়া।

এক জিগলোর কথায়, যেহেতু আমরা পয়সার বিনিময়ে যৌনসঙ্গম করি, তাই আমাদের পছন্দ- অপছন্দ গুরুত্ব পায় না। যে মহিলাকে পছন্দ নয়, তাঁদের সঙ্গেও শরীরি খেলায় মাততে হয়।

একেবারেই অপছন্দের নারীর যৌনঙ্গ লেহনও করতে হয়। এতে হয়তো বাড়তি দু পয়সা মেলে, তবে তার পর কয়েকদিন আর খেতে পারি না। আর পছন্দের নারী পেলে খুশিতে ডগমগ হন জিগলোরা।

সেখানে পছন্দের নারীর সঙ্গসুখ যেমন মেলে, তেমনি মেলে পয়সাও। ওই জিগলোর কথায়, অপছন্দের নারীর সঙ্গে সঙ্গম করতেও ইচ্ছে করে না।

তবে করতে হয়। আসলে আমাদেরও তো পেট আছে! রয়েছে সংসারও। তাই পছন্দ না হলেও চুমু খাই, লেহন করি যৌনাঙ্গও। আমাদেরও তো বাঁচতে হবে!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here