নিয়মিত সঙ্গমে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা!

0
125
নিয়মিত সঙ্গমে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা!
Couple lying in bed, low section, close-up

দ্য পিপল ডেস্কঃ বয়স পঞ্চাশ পেরোলেই বুড়িয়ে যান ভারতীয় পুরুষ। বৌমা এসে গেলে, কিংবা জামাই হয়ে গেলে মিলনে আগ্রহ হারান ভারতীয় মহিলারাও।কমে যায় ব্রেনের কার্যক্ষমতা -ও।

পৃথিবীর অধিকাংশ দেশে অবশ্য ষাটের পরেও নিয়মিত রতিক্রীড়ায় মাতেন নারী-পুরুষ। গবেষণা বলছে, সেই কারণেই তাঁদের মস্তিষ্ক সচল থাকে সত্তরেও।

অর্থাৎ, নিয়মিত শারীরিক মিলনে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা।

নিয়মিত সঙ্গমে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা!

পঞ্চাশ পার হলেই মনে রাখার ক্ষমতা কমে যায় মানুষের। এজন্য ওষুধও খান অনেকেই। নয়া গবেষণা বলছে, ব্রেনের কার্যক্ষমতা বাড়াতে নিয়মিত শরীরি খেলায় মাতুন।

হ্যাঁ, বয়স গড়িয়ে গেলেও। এতে কমবে ভুলে যাওয়ার প্রবণতা, বাড়বে একাগ্রতাও।

কভেন্ট্রি ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন গবেষক যৌনসঙ্গমে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ে কিনা, তা জানতে শুরু করেন গবেষণা।

নিয়মিত সঙ্গমে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা!

৫০ থেকে ৮৩ বছর বয়সী বেশ কিছু পুরুষ ও মহিলার ওপর গবেষণা করেন তাঁরা।

এই পুরুষ ও মহিলাদের তিনটি দলে ভাগ করা হয়েছিল।

একদল টানা এক বছর শরীরি সম্পর্ক করেননি। আর একদল মাসে একবার যৌনসঙ্গম করেছেন। অন্য দলের সদস্যরা সপ্তাহে অন্তত একবার কিংবা তার বেশিবার মেতেছেন নৈশলীলায়।

গবেষকরা দেখেছেন, যাঁরা নিয়মিত সঙ্গমে লিপ্ত হন, তাঁদের মনে রাখার ক্ষমতা বাকিদের তুলনায় বেশি। একাগ্রতাও অন্যদের তুলনায় বেড়েছে।

নিয়মিত সঙ্গমে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা!

জেনারেল রিজনিংয়ের নানা প্রশ্নের উত্তরও এঁরা দিয়েছেন চটপট। এর পরেই মস্তিষ্ক সচল রয়েছে তাঁদের, যাঁরা মাসে একবার শরীরি খেলায় মাতেন।

টানা একবছর যাঁরা রতিসুখ থেকে বঞ্চিত ছিলেন, তাঁদের মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা অনেক কম। কম একাগ্রতাও।

কী কারণে নিয়মিত যৌনসঙ্গমে বাড়ে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা?

নিয়মিত সঙ্গমে বাড়ে ব্রেনের কার্যক্ষমতা!

গবেষকদের মতে, সঙ্গমের সময় ক্ষরিত হয় দুটি হরমোন। একটি ডোপামাইন, অন্যটি অস্কিটোসিন।

মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায় এই হরমোন দুটি।

তাই যত বেশিবার শরীরি খেলায় মাতবেন, ততই ক্ষরিত হবে এই হরমোন দুটি। স্বাভাবিকভাবেই বাড়বে ব্রেনের ক্ষমতাও।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here