দ্য পিপল ডেস্কঃ ৬ জুলাই জি বাংলায় আসছে ধারাবাহিক ‘কাদম্বিনী’। সেই চরিত্রে দেখা যাবে ঊষসী রায়কে।

সূত্রের খবর, ঊষসীর দিদা চাইতেন আদরের নাতনি ডাক্তার হোক। কিন্তু ঊষসীর যখন আড়াই বছর বয়স তখন তাঁর দিদা ইহলোক ত্যাগ করেন।দিদার সেদিনের সেই চাওয়া বাস্তবে পরিণত না হলেও অন্ততপক্ষে অনস্ক্রিনে তা ঘটতে চলেছে।

ডাঃ কাদম্বিনী গাঙ্গুলি চরিত্রটা খুব স্পেশাল ঊষসীর কাছে; এমন কথাই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন তিনি।কাদম্বিনী চরিত্রটা যেহেতু আর পাঁচটা চরিত্রের মতো নয়, সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে চরিত্রটা তাঁর কাছে কতটা চ্যালেঞ্জিং জানতে চাইলে ঊষসী জানান-চরিত্রটাই হাতে আসার পর সেটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন।

প্রতিনিয়ত ভালো কাজ করার চেষ্টা করেছেন।১৮৯০-এর সময়কাল উঠে আসবে ধারাবাহিকে। সাজপোশাক, আদবকায়দা সবই অন্যরকম। সবমিলিয়ে কতটা খুশি তিনি এই চরিত্র নিয়ে?

ঊষসী জানান, আমার বাড়িতে রানী রাসমণি, নেতাজি দেখা হয়। আর আমিও পিরিয়ডধর্মী গল্প ভালোবাসি। আর এই চরিত্রটা পেয়ে তো আমি দারুণ খুশি। এই ধরনের চরিত্রের প্রতি আমার ঝোঁক আছে।এক গৃহিণীর ডাক্তার হয়ে ওঠার সফর এই ধারাবাহিকের রসদ। তবে তা কল্পনার মোড়কে নয়। সত্য ঘটনা অবলম্বনে।

বাংলার প্রথম এবং ভারতের দ্বিতীয় মহিলা ডাক্তার কাদম্বিনী গাঙ্গুলির ডাক্তার হয়ে ওঠার পিছনে স্বামী দ্বারকানাথ গাঙ্গুলির অনেক অবদান ছিল।

সেটাও স্পষ্ট হবে এই ধারাবাহিকে। দ্বারকানাথ গাঙ্গুলির চরিত্রে রয়েছেন মনোজ ওঝা।অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন দেবদূত ঘোষ, শুভ্রজিৎ দত্ত, প্রেরণা মুখার্জি সহ আরও অনেকে।