দ্য পিপল ডেস্কঃ ফের ভারতে বড়সড় হামলার ছক কষছে পাক মদতপুষ্ট দুই বড় জঙ্গি সংগঠন, লস্কর-ই-তইবা এবং জইশ-ই-মহম্মদ।

গোয়েন্দা সূত্রের খবর, চলতি বছরেই দেশের একাধিক জায়গায় একযোগে ফিদায়েঁ হামলা চালাতে পারে পাকিস্তানের অন্যতম দুই জঙ্গি সংগঠন। হামলার খবর পাওয়ার পরেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে সতর্ক করেছে গোয়েন্দা বিভাগ।

হামলার পরিকল্পনা চুড়ান্ত করতে পাকিস্তানের ভাওয়ালপুরের জঙ্গিঘাঁটিতে অন্যান্য জঙ্গিদের ডেকে পাঠিয়েছেন জইশ প্রধান মাসুদ আজহার। পাশপাশি ভারতের মাটিতে হামলার হুমকি দিয়েছেন লস্কর কমান্ডার আবু উজেইল।

আরও পড়ুনঃ ঘরে বাইরে কোণঠাসা ইমরান

সেনা সূত্রের খবর, শীতকালে তাপমাত্রা কম হওয়াতে অনুপ্রবেশের ক্ষেত্রে অনেকটাই সুবিধা হয় জঙ্গি সংগঠন গুলির। কিন্তু জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নিয়েছে সরকার। কড়া নিরাপত্তা জারি রয়েছে সীমান্তবর্তী এলাকাগুলিতে। তাই পাক সীমান্তের মাধ্যমে অনুপ্রবেশ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এবার হামলার ছক কষছে তাঁরা।

এমনিতেই পুলওয়ামা হামলার পর বালাকোটে ভারতীয় সেনার সার্জিকাল স্ট্রাইক চাপের মুখে ফেলে দিয়েছে জঙ্গি সংগঠন গুলিকে। তাই ভাওয়ালপুরের হেড কোয়ার্টার থেকে হামলার ছক কষছে তাঁরা।

সূত্রের খবর, শারীরিক অসুস্থতার কারণে শয্যাশায়ী মাসুদ আজহার। দলের দায়িত্বভার এখন নেতা রউফ আজগরের ওপর। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে দেশের একাধিক জায়গায় হামলার আশংকা করছে গোয়েন্দা বিভাগ।

উল্লেখ, গত ৫ই অগাস্ট জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে তুলে নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। গোটা উপত্যকা জুড়ে জারি কড়া নিরাপত্তা। তারপর থেকেই একাধিকবার অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে পাক সেনা এবং জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি। কিন্তু প্রত্যেকবারেই তাঁদের ছক বানচাল করে দেয় ভারতীয় সেনা।

কিছুদিন আগেই পাক অধিকৃত কাশ্মীরের তাংধার সেক্টরে হামলা চালিয়ে একাধিক জঙ্গিঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেয় ভারতীয় সেনা। তার ওপর ১ লা নভেম্বর থেকেই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের স্বীকৃতি পেয়েছে জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ। তাই বড়সড় হামলার মাধ্যমে জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি উত্তপ্ত করতে চাইছে জঙ্গি দল। এমনটাই মনে করছে কূটনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here