একবার এসে কথা বলুনঃ অপর্ণা সেন

0
39

দ্য পিপল ডেস্কঃ এনআরএস কাণ্ডের জেরে রাজ্যজুড়ে স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় অচল অবস্থা তৈরি হয়েছে। জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলনের হাত শক্ত করতে তাঁদের পাশে দাঁড়ালেন অভিনেত্রী অপর্ণা সেন এবং অভিনেতা কৌশিক সেন এবং সমাজকর্মী বোলান গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিন এনআরএস হাসপাতালে গিয়ে অপর্ণা সেন জুনিয়র ডাক্তারদের পাশে থাকার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে। বলেন, তিনি কোনও দলের হয়ে নয়, একজন নাগরিক হিসেবে এনআরএস-এর আন্দোলনকারীদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

সেই সঙ্গে কৌশিক সেন জানান, তাঁরা এসেছেন আন্দোলনের হাত শক্ত করতে। সরকার কেন এই ভাষা বুঝতে পারছে না? রাজ্যে বিভিন্ন খাতে, বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য টাকা বরাদ্দ করা হয়। তার প্রয়োজন নেই, সেই টাকা যেন স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ করা হয়। যতদিন এই সমস্যার সমাধান হবে না, ততদিন শিল্পীরা কোনো সরকারী পুরস্কার নেবেন না।

তিনি আরও বলেন, “আমি জানি এখানে ডাক্তাররা কোনোদিন রোগীর জাত, ধর্ম বা বর্ণ দেখে চিকিত্‍সা করেন না। এই অচলাবস্থার জন্যে রোগীরা যতটা কষ্ট পাচ্ছেন ডাক্তাররাও ততটাই কষ্ট পাচ্ছেন। আমার বিনীত অনুরোধ আমাদের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। আপনি শুধু রোগীদের নন, এই সব ডাক্তারদেরও মুখ্যমন্ত্রী। আপনি এদের মায়ের মতো। আপনি অবিভাবক। একই সঙ্গে আপনি রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীও বটে।”

তাঁর কথায়, “আমি হাত জোড় করে আপনার কাছে অনুরোধ করছি দয়া করে একবার আপনি এসে এদের সঙ্গে কথা বলুন। এদের নিরাপত্তাহীনতার অনুভূতি বোঝার চেষ্টা করুন। হুমকি দিয়ে এই পরিস্থিতি সামলানো যায় না। এরা আমাদের রত্ন। এই পরিস্থিতির শিকার হয়ে যদি এরা রাজ্য ছেড়ে অন্যত্র চলে যায় তাহলে ক্ষতি হবে পশ্চিমবঙ্গের। যদি জুনিয়র ডাক্তারদের কোনও কথায় আপনার খারাপ লেগে থাকে, তাহলে আমি অনুরোধ করছি, সন্তান মনে করে ওদের ক্ষমা করে দিন।”

এনআরএস কাণ্ডের আঁচ পড়েছে জেলা ছাড়িয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। অনড় জুনিয়র ডাক্তাররা। সাধারণ মানুষের সঙ্গে ডাক্তারদেরও বাড়ছে ক্ষোভ।

তবে ব্যতিক্রমী ছবিও দেখা যাচ্ছে। আন্দোলনে সামিল না হয়ে পরিষেবা দিচ্ছেন বারাসত হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। কালো ব্যাজ পড়ে প্রতীকী আন্দোলন দেখানোর পাশাপাশি কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন আলিপুরদুয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকরা।   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here