দ্য পিপল ডেস্কঃ বৃহস্পতিবার উত্তর ২৪ পরগণার কচুয়ায় লোকনাথ ধাম মন্দিরে দুর্ঘটনা মৃত ৪। পদপিষ্ট হয়ে আহত হয়েছেন ২৭ জন। আহতদের ন্যশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শুক্রবার আহতদের দেখতে ন্যশনাল মেডিকেল কলেজে উপস্থিত হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জন্মাষ্টমীর আগের দিন থেকেই বহু পুণ্যার্থী জল ঢালতে ভিড় জমান কচুয়ার লোকনাথধামে । পুণ্যার্থীদের চাপ এতটাই ছিল হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে মন্দিরের পাঁচিলের একাংশ। ঘটনার পরে এলাকায় হুড়োহুড়ি পরে যায়। তাতেই পদপিষ্ট হন পুণ্যার্থীরা।

এখনও পর্যন্ত পদপিষ্ট হয়ে মৃতের সংখ্যা ৫, আহত ২৬। সূত্রের খবর, অত্যাধিক ভিড়ের চাপে দুর্ঘটনা ঘটে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে আহতদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে কলকাতা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। ১  জন মহিলাকে নিয়ে আসা হয়েছে এসএসকেএমে । এছাড়া বসিরহাট হাসপাতালে ভর্তি আছেন বেশ কয়েকজন । আহতদের দেখতে কলকাতা ন্যশানাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

স্থানীয়দের অভিযোগ, জন্মাষ্টমী উপলক্ষে প্রতি বছরই কচুয়াতে ভক্তদের ভিড় হয়। আগের দিন থেকেই বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভক্তের সমাগম হয় । বৃহস্পতিবার রাত ৩টে  থেকে ভিড় বাড়তে থাকে। বৃষ্টির জন্য একসঙ্গে অনেক পুণ্যার্থী মন্দিরে ঢোকার চেষ্টা করে। যা সামাল দিতে হয় হিমসিম খায় পুলিশ ও নিরাপত্তা রক্ষীরা।

পুণ্যার্থীদের অভিযোগ, প্রতিবছর লোকনাথ ধামে জল ঢালতে মানুষের ভিড় থাকে। কিন্তু সব জানা সত্ত্বেও প্রশাসনের তরফ থেকে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয় নি । ব্যারিকেডের ব্যবস্থাও ছিল না । প্রশাসনিক কর্তারা ভিড় সামাল দেওয়ার ব্যবস্থা করলে কিছুতেই এই ঘটনা ঘটত না বলে দাবি পুণ্যার্থীদের। তবে মন্দির কতৃপক্ষের তরফ থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের বক্তব্য, অত্যাধিক ভিড় ও দুর্যোগের জন্য এই ঘটনা ঘটেছে। আহতদের দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন। আহতদের মধ্যে রয়েছে দুটি শিশু, বিশ্বজিত পাত্র (বর্ধমান), পম্পি মন্ডল, হেমন্ত মন্ডল (স্বরূপনগর), দীপ সরকার, কৌশিক বারুই, মৃত্যুঞ্জয় গুহ, ঝর্ণা মন্ডল। এখনও পর্যন্ত বাকীদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে তিনি জানান, ২ জনের অবস্থা আগের থেকে বেশ ভালো। তবে বাকীদের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

মৃতদের পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। গুরুতর আহতদের জন্য ১ লক্ষ টাকা ও অল্প আহতদের জন্য ৫০ হাজার টাকা ঘোষণা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here