দ্য পিপল ডেস্কঃ খেলোয়াড় নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবেন না কোনও মন্ত্রী । মহিলা বক্সার নাহিলা জারিনের করা টুইটের জবাবে এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরণ রিজেজু।   

 মহিলা বক্সারের এই টুইটারে জবাবে ক্রীড়ামন্ত্রী জানান, আমার বিশ্বাস দেশ, খেলা ও অ্যাথলিটদের প্রয়োজনের কথা মাথায় রেখে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে বক্সিং সংস্থা। যদিও অলিম্পিক চার্টারের মতো স্বশাসিত স্পোর্টস সংস্থায় কোনও মন্ত্রী হস্তক্ষেপ করতে পারে না।

 বৃহস্পতিবার ক্রীড়ামন্ত্রী কিরণ রিজেজুকে টুইটে ২০২০ টোকিও অলিম্পিকের আগে একটি কোয়ালিফই ম্যাচের আয়োজন করার আবেদন জানান  মহিলা বক্সার নাহিলা জারিন।

 

 সম্প্রতি শেষ হওয়া বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে ৫১ কেজি বিভাগে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন ষষ্ঠ সোনাজয়ী মহিলা বক্সার মেরি কম। এই প্রতিযোগিতায়  মেরির সঙ্গে অংশগ্রহনের দাবি জানিয়েছিলেন নাহিলা। সেই অনুযায়ী দিল্লিতে ট্রায়াল ম্যাচ আয়োজন করাও হয়েছিল। কিন্তু শেষ মুহুর্তে বাতিল হয়ে যায় ম্যাচটি। এবং সরাসরি বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপ খেলার ছাড়পত্র পেয়ে যান মেরি। তারপরই ঘোষণা করা হয়, যে সমস্ত প্রতিযোগী বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে পদক জিতবে। তাঁরা সরাসরি টোকিও অলিম্পিকে সুযোগ পাবেন।

  জারিন কথায় প্রতিটি অ্যাথলেটিককে স্বচ্ছভাবে সুযোগ দেওয়া উচিত। এছাড়া কোনও প্রতিযোগিতায় খেলতে নামার আগে ট্রায়াল ম্যাচ করা প্রয়োজন। ২৩টি স্বর্ণজয়ী সাতারুকে প্রতিযোগিতায় নামার পূর্বে ট্রায়াল ম্যাচ খেলতে হয়। তাহলে আমাদের দেশের প্রতিযোগীদের সুযোগ দেওয়া হবে না কেন ? এমনটাই প্রশ্ন তোলেন জারিন।

 জারিনের এই কথাকে সমর্থন করেন অলিম্পিকে সোনাজয়ী শ্যুটার অভিনব বিন্দ্রা টুইট করে জানান, প্রতি খেলোয়াড়কেই বড় প্রতিযোগিতায় নামার আগে ট্রায়াল ম্যাচ খেলা উচিত। নিজস্ব স্থান পর্যালোচনা করতে এটা খুবই দরকার বলে জানান তিনি।   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here