দ্য পিপল ডেস্কঃ পূর্ব মেদিনীপুর কাঁথিতে ৫ বছরের শিশুকে নৃশংস খুন। খুনের চেষ্টা শিশুর মাকেও। ঘটনাটি ঘটেছে শৌলার সমুদ্র তীরবর্তী  এলাকায় । মায়ের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে এলে চম্পট দেয় দুষ্কৃতী । শিশুর গলায় ধারালো অস্ত্র চালিয়ে তাকে একটি জলার পাশে ফেলে দিয়ে যায় । মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে শিশুর মা ।  

মৃত শিশুর মায়ের নাম শিবানী মাইতি। রঙের কাজের জন্য বাইরে থাকতে হয় স্বামী চন্দন মাইতিকে। অভিযোগ, প্রলোভন দেখিয়ে বাচ্চা ও তাঁর মাকে বাইকে করে সমুদ্রের ধারে নিয়ে যায় এক প্রতিবেশী যুবক। এরপর একটি ফাঁকা জায়গায় শিশু ও তাঁর মাকে নামিয়ে দেয় ওই যুবক। এরপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে শিশুটিকে আঘাত করতে গেলে বাধা দেয় তার মা। এরপর মায়ের সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু হয় ওই যুবকের । অভিযোগ, শিশুর মাকে নয়াজুলিতে চুবিয়ে মারার চেষ্টা করে ওই যুবক। এরপর গৃহবধূর চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে আসেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

স্থানীয়দের আসতে দেখে বাইক ফেলে চম্পট দেয় ওই যুবক। শিশু এবং তাঁর মাকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কাঁথি হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। শিশুকে দেখে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। অন্যদিকে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ওই মহিলা। ঘটনার পর থেকেই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকাজুড়ে। তবে কি কারণে শিশুকে হত্যা করা হল, তা এখনও জানা যায়নি। তদন্ত শুরু করেছে জুনপুট কোস্টাল থানার পুলিশ।      

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here