দ্য পিপল ডেস্কঃ বার্সেলোনায় উরুগুয়ে স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ জুভেন্টাসে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন।

জুভরাও তাকে দলে নিতে চেয়েছিল।

কিন্তু নন-ইউরোপ কোটার কারণে সুয়ারেজকে ইতালির নাগরিকত্ব নিতে বলেছিল জুভরা।

তার স্ত্রীর ইতালির নাগরিকত্ব থাকায় কাজটা সুয়ারেজের জন্য সহজ হওয়ারও কথা ছিল।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটা সম্ভব হয়নি। সুয়ারেজেরও জুভেন্টাসে যাওয়া ভেস্তে গেছে।

এখন তার অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদে যাওয়ার গুঞ্জন।

যদিও বার্সা তাকে লিগ প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাথলেটিকোয় যেতে দিতে রাজি না বলে খবর।

এর মধ্যে উটকো ঝামেলা এসে পড়লো সুয়ারেজের কাঁধে।

ইতালির পুলিশ তার বিরুদ্ধে প্রতারণা করে নাগরিকত্ব নেওয়ার অভিযোগ এনেছে।

সেই অভিযোগ খতিয়েও দেখা হচ্ছে।

ইতালির নাগরিকত্ব নিতে গেলে দিতে হয় বেশি কটা পরীক্ষা।

তার মধ্যে একটি ভাষা পরীক্ষা। কিন্তু সুয়ারেজ ইতালির ভাষা জানেন না।

তারপরও তিনি প্রতারণা করে ওই পরীক্ষায় পাস করার চেষ্টা করেছেন বলে অভিযোগ।

ইতালির সংবাদ মাধ্যম লা গেজেত্তা দেল স্পোর্ত এমনই খবর প্রকাশ করেছে।

এমনকি সংবাদ মাধ্যমটি এ বিষয়ে দুই পক্ষের আলাপও ফাঁস করেছে।

লা জেগেত্তার মতে, প্রথম পক্ষ বলেছে, বছরে তিনি (সুয়ারেজ) দশ মিলিয়ন ইউরো আয় করবেন।

তার ইতালির নাগরিকত্ব পরীক্ষায় পাস না করলে চলবে না।

দ্বিতীয় পক্ষ তখন বলেছে, কিন্তু তিনি যদি ঠিক মতো ভাষার কাঠামো ব্যবহার করে কথা বলতে না পারেন।

এরপর ওই পক্ষ আরেকটি বক্তব্য, আচ্ছা ঠিক আছে, কত নম্বর দিতে হবে বলুন। আমি ব্যবস্থা করে দেব।

তখন বিপরীত পক্ষ বলে, পাস না করাতে পারলে কিন্তু সব শেষ হয়ে যাবে।

তখন অপর দিক থেকে উত্তর আসে, আচ্ছা ঠিক আছে কী ধরণের প্রশ্ন হতে পারে বলো, ও মুখস্ত করে নেবে। আমরা তাকে সেভাবেই প্রস্তুত করবো।

উল্লেখ্য দেশটির পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে।