ছবি সূত্রঃ INDIA TODAY

দ্য পিপল ডেস্কঃ সীমান্তে ভারত- চিন সমস্যা অব্যাহত। পূর্ব লাদাখে ভারত ও চিনা সেনাবাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান যে আমেরিকা দু’দেশের বর্তমান পরিস্থিতির উপর নিয়মিত দৃষ্টি রাখছে এবং এই সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধান হোক এটাই চান তাঁরা।

এরপরেই এই বিষয়ে মুখ খুললেন প্রাক্তন মার্কিন জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টা জন বল্টন। তিনি বলেন, লাদাখে ভারত- চিন নিয়ে যে অশান্তি চলছে তাতে মার্কিন প্রশাসন উদ্বিগ্ন। সমস্যা সমাধান করতে সাহায্যের জন্য গোয়েন্দা ও ক্ষমতা ব্যবহার করা উচিৎ।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, দক্ষিণ চিন সাগরে আগ্রাসনের সঙ্গে বিরত সীমান্তে চিনে আক্রমণাত্মক আক্রমণ সমান। দুটি ক্ষেত্রেই আক্রমণাত্মক অবস্থান ছিল ভারতের।

বোল্টন এই বিষয়টি নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, চিন আক্রমণ করলেও ভারত পরিস্থিতি বজায় রেখেছে। তার আগ্রাসী উচ্চাকাঙ্ক্ষা নেই। গালওয়ান উপত্যকার সংঘর্ষের মতো ঘটনা চিনের উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

এদিন তিনি আরও বলেন, এই সময় মার্কিন- ভারত বানিজ্য সম্পর্কের থেকে বেশি প্রয়োজন এই সমস্যার সমাধান করা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই সমস্যা সমাধান নিয়ে বেশি আলোচনা করুক।

এই ভয়াবহ সঙ্কটে মার্কিন মুলুকের ভূমিকা নিয়ে তিনি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অনেক বেশি উদ্বিগ্ন হওয়ার কথা। সীমান্তে চিনের আক্রমণের দিকে ভারতের নজর দেওয়া দরকার।

পূর্ব চিন সাগরেও তারা একইভাবে আক্রমণ করেছে। চিন এখানে সামরিক সুবিধা ব্যবহার করছে। এই পরিস্থিতিতে ভারত ও আমেরিকার মধ্যে কৌশলগত আলোচনা প্রয়োজন।

ভারত সীমান্তে আক্রমণ অত্যন্ত উদ্বেগজনক। সীমান্তে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ভারত বছরের পর বছর কঠিন পরিশ্রম করেছে।