মোদির দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই ব্যাকফুটে চিন

0
41

সার্কের পরিবর্তে বিমস্টেক । বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের কূটনৈতিক চমকে আমূল পরিবর্তন ঘটে ভারতের বিদেশনীতিতে ।

মালদ্বীপ সফরে মোদি

রেশ কাটতে না কাটতেই মাস্টারস্ট্রোক দিলেন দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

মালদ্বীপ সফরে মোদি  01

চিনা নৌবাহিনীর গতিবিধির উপর নজরদারি রাখার প্রশ্নে বাড়তি পদক্ষেপ নিল ভারত ।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম বিদেশ সফর আজ শুরু হল মালদ্বীপে ।

সফরের প্রথম দিনই দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে থাকা ‘কোস্টাল সার্ভিলেন্স রেডার সিস্টেম’-এর উদ্বোধন করলেন মোদী এবং মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মহম্মদ সোলি ।

যদিও ২০১৮তেই ‘ভারত ইলেকট্রনিক্স’-এর তৈরি রেডারগুলি বসানো হয়ে গিয়েছিল । কিন্তু মলদ্বীপের চিনপন্থী সরকারের হস্তক্ষেপে সেগুলিকে চালু করতে দেওয়া হয়নি ।

নভেম্বরে মালদ্বীপের ক্ষমতায় আসেন ইব্রাহিম মহম্মদ সোলি । প্রাণ ফিরে পায় ‘কোস্টাল সার্ভিলেন্স রেডার সিস্টেম’ ।

মালদ্বীপ সফরে মোদি  02

মালদ্বীপ সফরে মোদি ,স্বাক্ষরিত হল গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি

পাশাপাশি বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি সই হয়েছে দু’দেশের মধ্যে । তার মধ্যে রয়েছে –

  • দু’দেশের নৌ চলাচল এবং প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত তথ্য বিনিময় চুক্তি
  • জলবিজ্ঞান এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সহযোগিতা চুক্তি
  • প্রশাসনিক সংস্কারের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ এবং দক্ষতা বাড়ানোর জন্য সমঝোতা চুক্তি
মালদ্বীপ সফরে মোদি  03

তবে দেশের কূটনীতিদের একাংশের মতে, ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে ‘কোস্টাল সার্ভিলেন্স রেডার সিস্টেম’ সফল ভাবে বসাতে পারার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ কৌশলগত সম্পদ হয়ে থাকল ।

মোট দশটি রেডার বসানো হয়েছে । বিদেশসচিব বিজয় গোখলের কথায়, ‘‘ভারত মহাসাগরে এই দ্বীপরাষ্ট্রের একটি নিজস্ব অর্থনৈতিক ক্ষেত্র রয়েছে ।সেটির নিরাপত্তার জন্য ওই রেডার সিস্টেম কাজ করবে ।’’

সূত্রের বক্তব্য, শুধু মলদ্বীপ নয়, সমুদ্রপথে নজরদারি বাড়াতেই মলদ্বীপের জমিকে কাজে লাগালো ভারত ।

মালদ্বীপ সফরে মোদি  04

দু’বছর আগে ঠিক এই এলাকাতেই চিনা সামরিক সাবমেরিন ঢুকে পড়েছিল ।

বেজিং-এর সঙ্গে ডোকলাম সংঘাত চলার সময় ৭টি সাবমেরিন ।

শুধু তাই নয়, সমরসজ্জায় সজ্জিত ১৪টি যুদ্ধজাহাজ ভারত মহাসাগরের এই অঞ্চলে ঢুকে পড়ার অনেক পরে টের পায় সাউথ ব্লক ।

তবে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠছে, রেডার বসানোর পরে অদূর ভবিষ্যতে চিনপন্থী সরকার মলদ্বীপে আসে, তা হলে এই রেডার ব্যবস্থা ভারতের কাছে বুমেরাং হয়ে ওঠার সম্ভাবনা কিন্তু প্রবল ?

বিশেষজ্ঞদের মতে ,রেডারগুলি বানিয়েছে ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা । এগুলির দূর নিয়ন্ত্রণ থাকবে পুরোপুরি ভারতের হাতেই ।

ভবিষ্যতে কোনও সঙ্কট তৈরি হলে ভারত একক ভাবে এগুলির কাজ বন্ধ করে দিতে পারে, এই কথাও চুক্তিতে উল্লেখ রয়েছে ।

অদূর ভবিষ্যতে কি হতে চলেছে তা এখনই বলা সম্ভব নয় ।

তবে বর্তমানে ‘কোস্টাল সার্ভিলেন্স রেডার সিস্টেম’ ভারত মহাসাগরে চিনাদের অবাধ যাতায়াতে যে ইতি টেনে দিয়েছে তা বলাই যায় ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here