দ্য পিপল ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চলতি বছরের শেষে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ রয়েছে ভারতের।


রয়েছে টি-২০ বিশ্বকাপও। তবে বিশ্বকাপের থেকেও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ খেলতে বেশি মুখিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটাররা।


চলতি বছরের শেষে চার ম্যাচের টেস্ট খেলতে গেলে, নিজেদের হোটেলে বন্দী রাখতে হবে বিরাট-রোহিতদের।


করোনা ভাইরাসের জেরে খেলা বন্ধ থাকায়, মাঠে ফিরতে মরিয়া ক্রিকেটাররা। ভারতীয়রা তৈরি প্রয়োজনে কোয়ারেন্টিনে গিয়েও অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ খেলতে।


বিসিসিআই কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল জানিয়েছেন, ভারতীয় টেস্ট দল যেনতেন প্রকারেন সিরিজ বাঁচাতে স্বার্থত্যাগ করতে প্রস্তুত।


ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এই মূহূর্তে বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে রয়েছে। আইপিএল বন্ধ থাকায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অবস্থাও ভালো নয়।


তাই ঘুরে দাঁড়াতে আর্থিকভাবে অন্যতম মেগা টেস্ট সিরিজ খেলতে মরিয়া দুই দলই।


অরুণ ধুমল বলেন, কারও কাছেই দ্বিতীয় কোনও রাস্তা নেই। সকলকেই নিয়ম মানতে হবে, যদি ক্রিকেটকে ফেরাতে চায়। দুটো সপ্তাহের কোয়ারেন্টিটা লকডাউনের থেকে বেশি বড় নয়।


চলতি মাসেই টেস্টের প্রথম স্থান থেকে ভারতকে সরিয়ে ১ নম্বরে উঠে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। করোনার জেরে অস্ট্রেলিয়ার অর্থনীতি ধুঁকছে।


তবে এই সিরিজ আয়োজন করতে পারলে কয়েক কোটি টাকা আয় করবে অজি ক্রিকেট বোর্ড। সেই লক্ষ্যেই সিরিজ করতে মরিয়া দুই বোর্ড।


এমনকি ভারতেকে পঞ্চম টেস্ট খেলারও আবেদন জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের কর্তারা।


সেক্ষেত্রে আফগানিস্তানের সঙ্গে একটি টেস্টও বাতিল হয়ে যাবে তাদের।


বিসিসিআই কোষাধ্যক্ষ বলছেন, এখনই পঞ্চম টেস্ট নিয়ে তাঁরা কথা বলতে চান না। কারণ ম্যাচ সম্প্রচারকারি সংস্থা বেশি সংখ্যক সিমিত ওভাররের ম্যাচ দেখাতে আগ্রহী। তাতে আয় বেশি হয়।


টি-২০ বিশ্বকাপ নিয়ে অরুণ বলেন, ক্রিকেটাররা অক্টোবর মাসে বিনা প্রস্তুতিতে বিশ্বকাপের মতো মেগা ইভেন্টে মাঠে নামতে রাজি হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।