দ্য পিপল ডেস্ক : যাওয়ার কোনও লক্ষণই দেখাচ্ছে না করোনা। বরং দিন দিন তার থাবা বৃদ্ধি করেই চলেছে। সাধারণ জ্বর, সর্দি বা কাশি হলেও মানুষ ভয় পাচ্ছেন করোনা হল না তো!


যদি করোনার কোনও উপসর্গ লক্ষ্য করেন তাহলে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করুন।

১. নাকে-মুখে গরম ভাপ
আদা, লেবু, তেজপাতা, এলাচ, লবঙ্গ, দারচিনি পরিমাণমতো জলসহ একটি পাত্রে ১৫ মিনিট ফোটান থাকুন। দেখবেন সাধারণ জলের থেকে এই ফোটানো মিশ্রণের রঙ আলাদা হয়ে যাবে।
এই গরম জলের ভাপ খুবই উপকারি। দিনে অন্তত চারবার এই ভাপ খুব উপকারি।

২. গরম পানীয়
আদা, লেবু, তেজপাতা, এলাচ, লবঙ্গ, দারচিনি একসঙ্গে ফুটিয়ে চায়ের মতো করে এক ঘণ্টা পর পর পান করতে পারেন। এছাড়াও মাঝে মধ্য়ে গরম জল, গরম চাও উপকারি।

৩. ফুসফুসের ব্যায়াম
প্রথমে নাক দিয়ে লম্বা শ্বাস নিন। এরপর এই শ্বাস যতক্ষণ পারেন আটকে রাখার চেষ্টা করুন। আস্তে আস্তে মুখ দিয়ে শ্বাস ছাড়ুন। দিনে কমপক্ষে ১০ বারের মতো করুন।

৪. গার্গল
বাইরে থেকে এসে স্যানিটাইজ করার পাশাপাশি গার্গল করাও খুব জরুরি। খুব ভালো হয় যদি ঘরে ঢোকার আগে গার্গল করে নিতে পারেন।

৫. ঘরোয়া উপাদান
গরম জলে সামান্য মধু, লেবুর রস আর আদার রস মিশিয়ে দিনে দুবার খান। একটি বাটিতে জল নিয়ে তাতে পেঁয়াজ কুচি ফেলে রাখুন। দিনে দুবার মধু দিয়ে এই পানীয় খেতে পারেন।

তবে এই সব পদ্ধতি যে করোনার উপসর্গ দেখা দিলেই করবেন তা নয়, কোনও উপসর্গ নেই মানুষও এই পদ্ধতিগুলো অবলম্বন করে সুরক্ষিত থাকতে পারেন।


তাছাড়া সময়টা বর্ষাকাল সাধারণ জ্বর, সর্দি, কাশি তো হয়ই। সেসব থেকে দূরে রাখতে পারে এই সব ঘরোয়া উপকরণ। তবে বাড়াবাড়ি হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।